পুঁজিবাজার

এনভয় টেক্সটাইলের ঋণমান ‘এএ১’

নিজস্ব প্রতিবেদক: বস্ত্র খাতের কোম্পানি এনভয় টেক্সটাইলস লিমিটেডের ঋণমান অবস্থান (ক্রেডিট রেটিং) নির্ণয় করেছে ক্রেডিট রেটিং এজেন্সি অব বাংলাদেশ লিমিটেড (সিআরএবি)। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
তথ্যমতে, কোম্পানিটি রেটিং পেয়েছে ‘এএ১’। ৩০ জুন ২০১৮ পর্যন্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও ২০১৯ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন, ব্যাংক ঋণের অবস্থান ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্যের আলোকে এ রেটিং সম্পন্ন হয়েছে।
এদিকে গতকাল কোম্পানিটির শেয়ারদর শূন্য দশমিক ৩৩ শতাংশ বা ১০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ৩০ টাকা ৩০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৩০ টাকা ৫০ পয়সা। ওইদিন কোম্পানিটির সাত লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দিনজুড়ে ২৩ হাজার ৯৪৫টি শেয়ার মোট ৭১ বার হাতবদল হয়। ওইদিন শেয়ারদর সর্বনিম্ন ২৯ টাকা ৫০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৩৩ টাকায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে কোম্পানির শেয়ারদর ২৯ টাকা ১০ পয়সা থেকে ৪১ টাকা ২০ পয়সায় ওঠানামা করে।
বস্ত্র খাতের ‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটি ২০১২ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ৩০ জুন ২০১৮ সালের সমাপ্ত হিসাববছরে বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ নগদ ও দুই শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। যা তার আগের বছরে ছিল সাত শতাংশ নগদ ও পাঁচ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে দুই টাকা এক পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৩৮ টাকা এক পয়সা। এটি আগের বছর ছিল যথাক্রমে দুই টাকা পাঁচ পয়সা ও ৩৮ টাকা ৫১ পয়সা। ওই সময় কর-পরবর্তী মুনাফা করেছিল ৩২ কোটি ৯৯ লাখ ৪০ হাজার টাকা, যা আগের বছর ছিল ৩২ কোটি ১১ লাখ ৮০ হাজার টাকা।
৪০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১৬৭ কোটি ৭৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৩৪৫ কোটি ৩৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির মোট ১৬ কোটি ৭৭ লাখ ৩৪ হাজার ৭৬৮ শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৪৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ৪২ দশমিক ৩৫ শতাংশ, বিদেশি শূন্য দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে ১২ শতাংশ শেয়ার।

সর্বশেষ..