কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

এপেক্স স্পিনিং অ্যান্ড নিটিং মিলসের ঋণমান ‘এএ৩’

নিজস্ব প্রতিবেদক : বস্ত্র খাতের কোম্পানি এপেক্স স্পিনিং অ্যান্ড নিটিং মিলস লিমিটেডের ঋণমান অবস্থান (ক্রেডিট রেটিং) নির্ণয় করেছে ক্রেডিট রেটিং এজেন্সি অব বাংলাদেশ লিমিটেড (সিআরএবি)। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্যমতে, কোম্পানিটি রেটিং পেয়েছে ‘এএ৩’। ৩০ জুন ২০১৯ পর্যন্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন, ৩০ নভেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত ব্যাংকঋণ অবস্থান এবং অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্যের আলোকে এ রেটিং দিয়েছে সিআরএবি।

এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে শেয়ারদর চার দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ বা চার টাকা ৪০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ১১১ টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১০৯ টাকা ৭০ পয়সা। দিনজুড়ে ৪৬ হাজার ৩০৯টি শেয়ার মোট ৩৭৪ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৫০ লাখ ৩৩ হাজার টাকা। দিনজুড়ে শেয়ারদর সর্বনি¤œ ১০৭ টাকা ৩০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১১২ টাকায় হাতবদল হয়। এক বছরে শেয়ারদর ৭৬ টাকা থেকে ১৪৬ টাকা ৯০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।

এদিকে দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর, ২০১৯) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৯১ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল ৯২ পয়সা। সে হিসাবে কোম্পানিটির ইপিএস এক পয়সা কমেছে। আর দুই প্রান্তিকে (জুলাই ২০১৮-মার্চ ২০১৯) বা ছয় মাসে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ৩২ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল এক টাকা ৩৭ পয়সা। ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর তারিখে শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ৫৩ টাকা ৫০ পয়সা, যা গত বছরের ৩০ জুন তারিখে ছিল ৫৫ টাকা আট পয়সা।

৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটি ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। ওই সময়ে ইপিএস হয়েছে দুই টাকা ৯৩ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৫৫ টাকা আট পয়সা।

এর আগে সর্বশেষ গত ৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটি ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। ওই সময়ে ইপিএস হয়েছে দুই টাকা ৯১ পয়সা এবং এনএভি দাঁড়িয়েছে ৫৪ টাকা ৮২ পয়সা।

‘এ’ ক্যাটেগরির এ কোম্পানিটি ১৯৯৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়।

৩০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন আট কোটি ৪০ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৩৬ কোটি ৮৭ লাখ ৯০ হাজার টাকা।

কোম্পানিটির মোট ৮৪ লাখ শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্য মতে মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৫৪ দশমিক ৮১ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক ২২ দশমিক ৬৩ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ২২ দশমিক ৩১ শতাংশ আর বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে শূন্য দশমিক ২৫ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য আয় (পিই) অনুপাত ৩৭ দশমিক ৪৪ এবং হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ৪১ দশমিক ৫৫।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..