প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

এবার ব্যবসায়ী পরিচয়ে পেসার তাসকিন

নিজস্ব প্রতিবেদক: আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার মাত্র দুই বছরের। ভারতের বিপক্ষে ২০১৪ সালের ১৭ জুন ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে পথচলা শুরু। তবে ছোট্ট এই ক্যারিয়ারে অনেক কিছুই দেখেছেন তিনি। উত্থান-পতন আর চমকে ঠাসা তার ক্যারিয়ার। সেই ক্রিকেট ক্যারিয়ারের বাইরে এবার নতুন পরিচয় পেতে যাচ্ছেন তাসকিন আহমেদ। মোহাম্মদ আশরাফুল আর সাকিব আল হাসানের পর রেস্টুরেন্ট ব্যাবসায় নামছেন এই তরুন পেসার।

অবশ্য ভোজন বিলাসীদের জন্য সেই আয়োজনের পুরোটাই সামলাবেন তার বাবা আবদুর রশিদ। যেমনটা বলছিলেন তিনি, ‘দেখুন, লাভ-লস তো পরের হিসাব। ব্যবসা তো খারাপ কিছু নয়। আমাদের ইচ্ছে ও এই ব্যবসায় আসুক। শুধু রেস্টুরেন্ট নয়, সঙ্গে একটা পুল খেলার ব্যবস্থাও থাকবে। কারণ ও এই খেলাটা খুব ভালোবাসে। সেই হিসেবে পুলটা দেওয়া। আশা করছি ্ওর ভোজন বিলাসী ভক্তরা এখানে দারুণ সময় কাটাতে পারবে।’ রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ইকবাল রোডে তাসকিনদের বাসা। তার আশপাশেই গড়ে উঠছে তাসকিনের রেস্টুরেন্ট।

একটাই ফ্লোর। একপাশে হবে পুল খেলার বোর্ড। আর একপাশে হবে রেস্টুরেন্ট। এখনো আমরা ঠিক করেনি, কবে আমরা এ ব্যবস্থা শুরু করব। তবে যতদ্রুত চেষ্ঠা করছি শুরু করতে।

চলতি মাসের ১০-১১ তারিখে নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য দেশ ছাড়ার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। এর আগেই তাসকিনের বাবা চাচ্ছিলেন রেস্টুরেন্ট ব্যবসাটা উদ্বোধন করতে। কিন্তু পুল খেলার বোর্ড এখনও হাতে না পাওয়ায় এখনো শুরু করতে পারছে না বলে জানান তিনি।

ছেলে রেস্টুরেন্ট ব্যাবসায় নামছে। মায়ের মত কি? এমন প্রশ্ন করাতেই। তাসকিনের বাবা বললেন, ওর মা তো ছেলের কথা বলতেই ঠিক। ছেলে যা করতে চাই, তার ময়ের কোনো আপত্তি থাকেনা। সব সময় ওকে মাথায় করে রাখে ওর মা।

শেয়ার বিজকে তাসকিনের মা বলছিলেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম পড়াশোনার পাশাপাশি ওর যা মন চায় তাই করুক। সেটাই ও করেছে। ওর কোনো কাজে আমরা বাধা দেয়নি। রেস্টুরেন্ট ব্যবসায় তো বাধা দেওয়ার প্রশ্ন আসে না। কারণ একদিন ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষ হবে তাসকিনের। তারপরও তাকে কিছু একটা করতে হবে। তাইতো আমরা চাই ও রেস্টুরেন্ট ব্যবসা করুক।’

গত ২২ নভেম্বর নিজের অফিসিয়াল ফেসবুকে ত্সাকিন রেস্টুরেন্ট ব্যাবসায় আসার খবরটি ভক্তদের জানান। সেখানে তিনি লেখেন, ‘সবাই তৈরি তো? আমরা খুব শিগগিরই আসছি অত্যাধুনিক পুল ও রেস্টুরেন্ট নিয়ে আমার মোহাম্মদপুর এলাকায়। আরও অনেক কিছু চমক আছে, তাই অপেক্ষা ও দোয়া করবেন। ধন্যবাদ সবাইকে।’

তাহলে এবার তাসকিনকে শুধুই ক্রিকেটার পরিচয়ের গণ্ডিতে বেঁধে রাখা যাচ্ছে না। ব্যবসায়ী তাসকিনও আসবেন আলোচনায়!