প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

এসিআই ফুডস, কেমিক্যাল ও লজিস্টিকসকে চেয়েছে এলটিইউ

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের অন্যতম শীর্ষ বাণিজ্যিক গ্রুপ এসিআই লিমিটেডের এসিআই ফুড, কেমিক্যাল ও লজিস্টিকসকে অন্তর্ভুক্ত করতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) চিঠি দিয়েছে বৃহত্ করদাতা ইউনিট। তাদেরসহ মোট ৪৬টি প্রতিষ্ঠানকে এলটিইউতে অন্তর্ভুক্ত করার অনুরোধ জানিয়ে এনবিআর চেয়ারম্যানকে চিঠি দেয়া হয়েছে। এলটিইউর কমিশনার ওয়াহিদা রহমান চৌধুরী সম্প্রতি এ চিঠি দিয়েছেন।

এনবিআর সূত্রমতে, মোট ভ্যাট লক্ষ্যমাত্রার প্রায় ৬০ শতাংশ জোগান দেয় এলটিইউ। রাজস্ব কমে যাওয়ায় এলটিইউ থেকে হেভিওয়েট ৩৪টি প্রতিষ্ঠান স্থানান্তর করা হয়েছে। কিন্তু নতুন কোনো প্রতিষ্ঠান এলটিইউতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। আবার কভিডে হোটেল, ব্যাংক, ইন্স্যুরেন্স, বিমান ও শিল্প খাতসহ সব খাত থেকে রাজস্ব আহরণ আশঙ্কাজনক হারে কমেছে। এতে এলটিইউর রাজস্ব আদায়ে প্রভাব পড়ছে। এছাড়া এলটিইউতে থাকা অনেক গ্রুপ অব কোম্পানির কিছু প্রতিষ্ঠান অন্য কমিশনারেটে রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠান এলটিইউতে অন্তর্ভুক্ত করা হলে গ্রুপ অব কোম্পানির একদিকে ব্যবসায়িক খরচ কমবে, অন্যদিকে এসব প্রতিষ্ঠানকে মনিটরিং ও নিরীক্ষার মাধ্যমে রাজস্ব আদায় বাড়ানো সম্ভব হবে।

৪৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এসিআই গ্রুপের এসিআই ফুডস ২০১৯-২০ অর্থবছর সাড়ে ১১ কোটি ও ২০২০-২১ অর্থবছর সাড়ে ১০ কোটি, এসিআই কেমিক্যালস ২০১৯-২০ অর্থবছর পাঁচ লাখ ও ২০২০-২১ অর্থবছর ৯ কোটি, ২০১৯-২০ অর্থবছর সাড়ে ৩৪ কোটি ও ২০২০-২১ অর্থবছর ১৭ কোটি টাকার রাজস্ব দিয়েছে। তিনটি প্রতিষ্ঠানই বর্তমানে ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেটের আওতাধীন। তাদের এলটিইউতে চাওয়া হয়েছে চিঠিতে। এই তিনটি প্রতিষ্ঠান ছাড়াও এসিআই গ্রুপের এসিআই লিমিটেড ও এসিআই ফর্মুলেশন লিমিটেড এলটিইউর অধিভুক্ত।