প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ঐশ্বরিয়ার ‘পন্নিইন সেলভান’

শোবিজ ডেস্ক: দীর্ঘ চার বছর পর সেলুলয়েডে ফিরেই রূপ আর অভিনয় গুণের ঝলক দেখালেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন।পরিচালক মণিরত্নমের ‘পন্নিইন সেলভান’ সিনেমার মধ্য দিয়ে তার রাজকীয় প্রত্যাবর্তনে দারুণ চাঞ্চল্য ভক্তদের মনে।

এ সিনেমায় নন্দিনী এবং তার মা মন্দাকিনী দেবী, দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঐশ্বরিয়া। এতে বিক্রম-ঐশ্বরিয়া ছাড়াও বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন জায়াম রবি, কার্তি, তৃষা কৃষ্ণান, শোভিতা ধূলিপালার মতো একঝাঁক তারকা।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর ৫০০ কোটি রুপি বাজেটের এই সিনেমাটি হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মালয়ালম ও কন্নড় ভাষায় মুক্তির পর আলোচনায় রয়েছে। প্রথম দিনেই বিশ্বব্যাপী ৮৩ কোটি রুপি আয় করে এটি। মাত্র দুদিনে এ সিনেমার আয় দাঁড়িয়েছে ১৫৩.৪ কোটি রুপি। এর মধ্যে শুধু ভারতের বক্স অফিস আয় ৮৩.৪ কোটি রুপি। পাশাপাশি, বিশ্বের অন্য দেশগুলো থেকে আরও ৭০ কোটি রুপি আয় করেছে ‘পন্নিইন সেলভান’। খবর ই টাইমসের।

কাল্কি কৃষ্ণমূর্তির লেখা ‘পন্নিইন সেলভান’ উপন্যাস থেকে সিনেমা নির্মাণের চেষ্টা তামিল ইন্ডাস্ট্রি চালিয়ে যাচ্ছিল সেই পঞ্চাশের দশক থেকে। কিন্তু সম্ভব হয়নি। ‘পন্নিইন সেলভান’ উপন্যাসে মূলত প্রাচীনকালের চোলা সম্প্রদায়, রাজমহলের ক্ষমতা দখলের চক্রান্ত এসব ঐতিহাসিক ঘটনার বর্ণনা উঠে এসেছে।

পরিচালক নব্বই দশকে সিনেমাটি বানানোর উদ্যোগ নেন। তবে বিশাল বাজেটের সংস্থান পাননি প্রযোজক। ২০১০ সালে আবারও উদ্যোগ নেন। পরবর্তী সময়ে ২০১০ সালে আবারও উদ্যোগ নেন সিনেমা বানানোর। সেবারও বাধাগ্রস্ত হন। এরপর ২০১৯ সালে আসে ‘পন্নিইন সেলভান’ সিনেমার অফিশিয়াল ঘোষণা।

দুই খণ্ডে নির্মিত এ সিনেমার প্রথম খণ্ড মুক্তির পর বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে। দ্বিতীয় খণ্ড মুক্তি পাবে ২০২৩ সালে। অনেকেই বলছেন, ভারতের বক্স অফিসের সব রেকর্ড ভাঙতে পারে এ সিনেমা।