টেলকো টেক

ওকলা স্পিডটেস্টে আবারও দ্রুততম নেটওয়ার্ক গ্রামীণফোনের

ইন্টারনেটের গতি পরীক্ষা ও বিশ্লেষণের প্রতিষ্ঠান ‘ওকলা’ পরিচালিত নিরীক্ষায় ২০১৯ সালের প্রথম ও দ্বিতীয় প্রান্তিকে আবারও বাংলাদেশের ‘দ্রুততম মোবাইল নেটওয়ার্ক’-এর স্বীকৃতি পেয়েছে গ্রামীণফোন।
‘স্পিডটেস্ট অ্যাওয়ার্ড’ বিজয়ী নির্বাচনের জন্য ‘স্পিড-স্কোর’ প্রক্রিয়ায় মোবাইল অপারেটরদের ডাউনলোড ও আপলোড স্পিড পরীক্ষার মাধ্যমে নেটওয়ার্ক স্পিড পারফরম্যান্সের ক্রম নির্ণয় করা হয়। ২০১৮ সালে ৯.২৫ স্কোর নিয়ে বিজয়ী হওয়ার পর থেকে পর্যায়ক্রমে উন্নতকরণের মাধ্যমে ২০১৯ সালে ১০.৬০ স্কোর অর্জন করে গ্রামীণফোন।
গ্রামীণফোনের ডেপুটি সিইও এবং সিএমও ইয়াসির আজমান বলেন, আমাদের কাজ এখানেই শেষ নয় বরং ভবিষ্যতে উন্নয়ন ও উদ্ভাবনের এ ধারা বজায় রাখতে আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে। গ্রাহকের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে আমরা ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাচ্ছি। নিয়ন্ত্রক সংস্থার আরোপিত নানা বিধিনিষেধ সত্ত্বেও আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।
ওকলা স্পিডস্কোর পরীক্ষায় দ্রুততম গতির নেটওয়ার্কে সংযোগ স্থাপনে সক্ষম আধুনিক ডিভাইস ব্যবহার করা হয়। নির্দিষ্ট সময়ের ব্যবধানে পরিচালিত টেস্টে উঠে আসে বাংলাদেশের সবচেয়ে দ্রুতগতির মোবাইল ইন্টারনেট গ্রামীণফোনের নাম।
ওকলার এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট জেমি স্টিভেন বলেন, এ বছরের প্রথম ও দ্বিতীয় প্রান্তিকে গ্রাহকের স্বতঃস্ফূর্ত ‘স্পিডটেস্ট’ পরীক্ষার ফল চুলচেরা বিশ্লেষণে অনবদ্য পারফরম্যান্সের কারণে এ স্বীকৃতি পেয়েছে গ্রামীণফোন।
২০১৯ সালের জুন পর্যন্ত গ্রামীণফোনের গ্রাহকসংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত কোটি ৫৩ লাখে। দ্বিতীয় প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটি নেটওয়ার্ক আধুনিকায়ন ও ফোরজি সেবা সম্প্রসারণে ৩৮০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। ১৬ হাজারের বেশি সাইট নিয়ে গ্রামীণফোন নেটওয়ার্ক এখন ১০০ শতাংশই মোবাইল ব্রডব্যান্ড কাভারেজ দিচ্ছে।

সর্বশেষ..