প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ওবামাকেয়ার বাতিল স্বাস্থ্যবিমা হারাবে ৩ কোটি মার্কিন

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ওবামাকেয়ার বাতিল করে ট্রাম্প স্বাস্থ্য পরিষেবা অনুমোদন করলে প্রায় তিন কোটি ২০ লাখ যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পারে বলে জানিয়েছে কংগ্রেসনাল বাজেট অফিস (সিবিও)। স্থানীয় সময় বুধবার রাতে সিনেটরদের এক নৈশভোজের আমন্ত্রণ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখানে আরও দুই সিনেটর বেঁকে বসেন। ফলে ওবামাকেয়ার বাতিল করে ট্রাম্প পরিষেবা চালু নিয়ে অনিশ্চয়তা থেকেই গেলো। খবর বিবিসি, রয়টার্স।

এক প্রতিবেদনে যুক্তরাষ্ট্রের আইন গবেষণাকারী প্রতিষ্ঠান সিবিও জানায়, সামনের বছরের মধ্যে নতুন এ স্বাস্থ্যবিলের খরচ বাড়বে ২৫ শতাংশ এবং ২০২৬ সালের মধ্যে ব্যয় দ্বিগুণ হবে। তবে এতে কেন্দ্রীয় সরকারের বাজেট ঘাটতি ৪৭ কোটি ৩০০ ডলার কমবে বলে ধারণা করছে সিবিও।

ইতোমধ্যে দুবার এ বিল পাস করতে ব্যর্থ হয়েছে রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠ সিনেট। ১০০ সদস্যের সিনেটে রিপাবলিকান সিনেটরের সংখ্যা ৫২। আগামী সপ্তাহে আবারও তারা ওবামার হেলথকেয়ার বিল বাতিল করে নতুন নীতি প্রণয়নের চেষ্টা করবে। তবে সিবিওর ধারণা, ওবামা কেয়ার বাতিল করলে সামনের বছর এক কোটি ৭০ লাখ মানুষ স্বাস্থ্য সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে।

এর আগে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘আমাদের শিগগিরই এ ব্যবস্থা বাতিল করে নতুন কিছু করতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘গত সাত বছর ধরে আপনি মার্কিনিদের কথা দিয়েছেন যে, ওবামাকেয়ার পাল্টানো হবে। তারা এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আমরা এটা পাল্টাবোই এবং খুব দ্রুতই।’

দেশের অনেক বেশি সংখ্যক মানুষকে স্বাস্থ্যবিমার আওতায় আনতে ‘পেশেন্ট প্রোটেকশন অ্যান্ড অ্যাফোর্ডেবল কেয়ার অ্যাক্ট’ এনেছিল ওবামা প্রশাসন। যা ‘ওবামাকেয়ার’ নামেই পরিচিত। যে সংস্থায় ৫০-এর বেশি কর্মী, তাদের সবাইকে বিমার আওতায় আনার কথা বলা হয়েছিল এ বিলে।

এতে দেশের কর্মসংস্থানের ওপরেও পরোক্ষে চাপ বাড়ছে বলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে বিষয়টিকে হাতিয়ার করেন ট্রাম্পও। এরপর হোয়াইট হাউজে আসার দ্বিতীয় দিনই ওবামাকেয়ারের বাতিল চেয়ে সই করেন বিশেষ প্রশাসনিক নির্দেশিকায়।