ওমানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে জটিল সমীকরণে বাংলাদেশ

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার দিয়ে শুরু হয়েছে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ফলে জটিল হয়েছে বাংলাদেশের সুপার টুয়েলভে যাওয়ার পথ।আজ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সময় রাত আটটায় শুরু হবে এই ম্যাচ।

প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়ায় এখন সুপার টুয়েলভে ওঠার ক্ষেত্রে জটিল সমীকরণের সামনে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ শেষে ‘বি’ গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে চোখ রাখলে দেখা যাবে। প্রথম ম্যাচ জিতে ওমান ও স্কটল্যান্ড দুই দলই ২ পয়েন্ট পেয়েছে। তবে রানরেটের (+৩.১৩৫)  কারণে শীর্ষে আছে ওমান। দুইয়ে (+০.৩ রানরেট) আছে স্কটল্যান্ড। শূন্য হাতে (-০.৩) তিনে আছে বাংলাদেশ। আর নেট রানরেটে অনেক পিছিয়ে থাকা (-৩.১৩৫) পাপুয়া নিউগিনি আছে চারে।

আজ দিনের প্রথম ম্যাচ মুখোমুখি হবে স্কটল্যান্ড ও পাপুয়া নিউগিনি। সে ম্যাচের ফলের উপরই অবশ্য বাংলাদেশের বিশ্বকাপ ভাগ্য অনেকটা নির্ভর করছে।

সে ম্যাচে স্কটল্যান্ড যদি জিতে যায়, সে ক্ষেত্রে নিজেদের ম্যাচে বাংলাদেশের জয় ছাড়া কোনো গতি নেই। পাশাপাশি আজকে যদি বাংলাদেশ হেরে যায়, সে ক্ষেত্রে ওমান ও স্কটল্যান্ড দুই দলেরই পয়েন্ট ৪ হয়ে যাবে। ফলে শেষ ম্যাচ খেলার আগেই বাদ পড়ে যাবে বাংলাদেশ।

আবার স্কটল্যান্ড যদি নিজেদের ম্যাচ জিতে যায় এবং বাংলাদেশও ওমানের বিপক্ষে জয় পায় বাংলাদেশ তখন শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে পাপুয়া নিউগিনির। আর স্কটল্যান্ড ও ওমান মুখোমুখি হবে গ্রুপের শেষ ম্যাচে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশ নিজেদের ম্যাচটি জিতলেও নিশ্চিত হতে পারবে না। কারণ, স্কটল্যান্ড যদি ওমানের কাছে হেরে বসে, তখন তিন দলেরই পয়েন্ট হবে ৪। আর তখন কোন দুই দল সুপার টুয়েলভে যাবে সেটা নির্ধারণ করতে হবে নেট রানরেটে। অর্থাৎ, শুধু ম্যাচ জিতলেই হবে না বড় ব্যবধানে জিততে হবে বাংলাদেশকে।

তবে আজ যদি স্কটল্যান্ড হেরে যায়, সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের কাজটা সহজ হয়ে যাবে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পরের দুটি ম্যাচ জিতলেই উঠে যাবে সুপার টুয়েলভে। বাকি দলগুলো কি করলো সেটা নিয়ে ভাবতে হবে না বাংলাদেশকে। কারণ, যদি স্কটল্যান্ড ও ওমান—দুই দলই হারে, সে ক্ষেত্রে গ্রুপে শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে এ দুই দল। আর যেহেতু সে ম্যাচে এক দলকে হারতেই হবে, তখন দুই জয় নিয়ে (ওমানের পর বাংলাদেশ নিউগিনিকেও হারাবে ধরে নিয়ে) নিশ্চিতভাবেই গ্রুপের অন্তত দুই দলের চেয়ে এগিয়ে থাকবে বাংলাদেশ।

কিন্তু যদি  স্কটল্যান্ড আজ হারে এবং বাংলাদেশ যদি ওমানের কাছে হারে তখন কি হবে? তখনো সুযোগ থাকবে। আর সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে নিজেদের শেষ ম্যাচে জিততে হবে। ২১ অক্টোবরের সে ম্যাচে পাপুয়া নিউগিনিকে বড় ব্যবধানে হারাতে হবে এবং ওমানকে জিততে হবে স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে। তখন স্বাগতিকদের পূর্ণ ৬ পয়েন্ট হয়ে যাবে। আর গ্রুপের বাকি তিন দলেরই হবে ২ পয়েন্ট।

আবার যদি আজ স্কটল্যান্ড নিজেদের ম্যাচ জিতে যায় এবং বাংলাদেশও তাদের ম্যাচ জেতে। কিন্তু গ্রুপের শেষ ম্যাচে আবার পাপুয়া নিউগিনির কাছে হারে বাংলাদেশ। তখন আবার আশা করতে হবে যেন ওমানকে অনেক বড় ব্যবধানে হারায় স্কটিশরা। কারণ, এ সমীকরণে তখন স্কটল্যান্ডের পূর্ণ ৬ পয়েন্ট হয়ে যাবে। আর গ্রুপের বাকি তিন দলেরই হবে ২ পয়েন্ট।

এবার বিশ্বকাপের নিয়মানুযায়ী, সমান পয়েন্ট থাকলে দলগুলোর নেট রানরেটই বিবেচ্য হবে। অর্থাৎ যে ম্যাচে জয় পাবে বাংলাদেশ, সে ম্যাচে জয়ের ব্যবধানটা যেন বড় হয়, সে চেষ্টা করতে হবে বাংলাদেশকে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯১  জন  

সর্বশেষ..