মত-বিশ্লেষণ

কভিডকালে শিশুদের প্রতি আলাদা মনোযোগ

করোনাভাইরাসজনিত রোগ (কভিড-১৯) বিশ্বজুড়ে পারিবারিক জীবন এলোমেলো করে দিয়েছে। সময়ে শিশুসন্তানের প্রতি আলাদা মনোযোগ দিতে হয়। তাদের অনেক প্রশ্নের জবাব দিতে হয়, তাদের বোঝাতে হয় প্রজ্ঞার সঙ্গে। কভিডকালে শিশুকে কীভাবে গুণগত সময় দেবেন, তা ঠিক করুন। 

আপনার কিশোর সন্তানকে মানসিক চাপ কমাতে সহায়তা করুন: আপনার কিশোর সন্তানেরাও মানসিক চাপের সম্মুখীন হতে পারে কখনও কখনও আপনার কাছ থেকে না হলেও ভিন্ন কোনো মাধ্যম থেকে। তারা কেমন অনুভব করছে, তা তাদের প্রকাশ করতে দিন এবং তাদের অনুভ‚তিগুলোকে গ্রহণ করুন।

আপনার সন্তানের কথা শোনার এবং কোনো কিছুকে তাদের দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখার চেষ্টা করুন। বিশ্রাম ও আনন্দদায়ক কার্যক্রম একসঙ্গে করুন।

আপনার কিশোর সন্তানকে অনলাইনে নিরাপদ রাখুন: স্বাস্থ্যকর যন্ত্র (ডিভাইস) ব্যবহার সম্পর্কে পারিবারিক প্রযুক্তি চুক্তি তৈরিতে আপনার কিশোর সন্তানকে সম্পৃক্ত করুন। ব্যক্তিগত তথ্য কীভাবে গোপন রাখতে হয়, বিশেষ করে অপরিচিতদের কাছ থেকে, সে বিষয়ে শিখতে আপনার সন্তানকে সহায়তা করুন। আপনার সন্তানকে মনে করিয়ে দিন তারা যখনই অনলাইনে খারাপ কোনো অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হবে, তখনই তারা সে বিষয়ে আপনার সঙ্গে কথা বলতে পারে।

নবজাতক শিশুর প্রতিপালন: ছোট শিশুদের সঙ্গে ঘরের ভেতরে আমরা অনেক বেশি সময় কাটাই এবং কভিড-১৯ এ সময় আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। এ সময়ে নিজের ও আপনার শিশুর জন্য বিচ্ছিন্ন, হতবিহŸল, উদ্বিগ্ন ও ভীতি অনুভ‚ত হওয়া খুবই স্বাভাবিক।

কাজ ভাগ করে নেয়ার মাধ্যমে যত্ন নিন: অন্যদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে এবং সংযুক্ত থাকতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম, ফোন কল ও আপনার আয়ত্তের মধ্যে থাকা যেকোনো কিছু ব্যবহার করুন। অন্যদের সঙ্গে পালাক্রমে শিশুর যত্ন নিন। আপনার নিজের জন্য সময় নিন। আপনার শিশু যখন ঘুমায় তখন আপনিও ঘুমান, এতে আপনি শরীরে শক্তি পাবেন।

আপনার শিশুর সঙ্গে যোগাযোগ তৈরি: আপনার শিশু যা করে, তা অনুকরণ করে তাকে অনুসরণ করুন। তাদের উচ্চারিত আওয়াজ বা শব্দের পুনরাবৃত্তি করুন এবং সাড়া দিন। আপনি যখন আপনার শিশুর সঙ্গে কথা বলবেন, তখন তার নাম ব্যবহার করুন। আপনার শিশু যা করছে, তা বর্ণনা করার জন্য শব্দ ব্যবহার করুন।

ইউনিসেফের তথ্য অবলম্বনে

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..