কভিডে শনাক্ত বেড়ে ছাড়াল চার হাজার

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় কভিডে ছয়জন মারা গেছেন। শনাক্ত হয়েছেন চার হাজার ৩৭৮ জন। সে হিসাবে দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক দিনেই বাড়ল ৩০ শতাংশের বেশি, কভিড মহামারিতে বাংলাদেশ ফিরে গেল ২০ সপ্তাহ পেছনে।

এক দিনে এর চেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল গত বছরের ২৬ আগস্ট, সেদিন চার হাজার ৬৯৮ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত কভিড রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ লাখ ৯ হাজার ৪২ জনে। তাদের মধ্যে ২৮ হাজার ১২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে কভিডে।

গতকাল শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

২০ সপ্তাহ পর নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৪ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। গত এক দিনে দেশে মোট ২৯ হাজার ৮৭১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, তাতে শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৪ দশমিক ৬৬ শতাংশে। বৃহস্পতিবার এই হার ১২ দশমিক শূন্য তিন শতাংশ ছিল।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩৫১ জন এবং এখন পর্যন্ত সুস্থ ১৫ লাখ ৫২ হাজার ৩০৬ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৬৬ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৩০ হাজার ৩৬৬টি, অ্যান্টিজেন টেস্টসহ নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৯ হাজার ৮৭১টি। এখন পর্যন্ত এক কোটি ১৮ লাখ আট হাজার ৯২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। শনাক্ত বিবেচনায় গত ২৪ ঘণ্টায় প্রতি ১০০ নমুনায় ১৪ দশমিক ৬৬ শতাংশ এবং এখন পর্যন্ত ১৩ দশমিক ৬৩ শতাংশ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্ত বিবেচনায় প্রতি ১০০ জনে সুস্থ হয়েছে ৯৬ দশমিক ৪৭ শতাংশ এবং মারা গেছেন এক দশমিক ৭৫ শতাংশ।

মৃতদের মধ্যে দুজন পুরুষ এবং চারজন নারী। তাদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে একজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন এবং ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন মারা গেছেন।

বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা গেছে, মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে তিনজন, চট্টগ্রামে দুজন এবং রাজশাহীতে একজন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন পাঁচজন এবং বেসরকারি হাসপাতালে একজন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯১১০  জন  

সর্বশেষ..