কভিডে সাতজনের মৃত্যু শনাক্ত ৪৬৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: কভিডে সারা দেশে আরও সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে পাঁচজন পুরুষ ও দুজন নারী। তাদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ছয়জন ও বেসরকারি হাসপাতালে একজন মারা গেছেন। মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৭ হাজার ৭৮৫ জন।

একই সময় আক্রান্ত হিসেবে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ৪৬৯ জন। এ নিয়ে সারা দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৬৬ হাজার ২৯৬ জন। গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে সরকারি-বেসরকারি ৮৩১টি ল্যাবরেটরিতে ২১ হাজার ৩০৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করতে এক কোটি এক লাখ ৩৫ হাজার ৪২টি নমুনা পরীক্ষা করা হলো।

নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার দুই দশমিক ২০ শতাংশ। দেশে গত বছর ৮ মার্চ প্রথম আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। গতকাল পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার ভিত্তিতে শনাক্ত রোগীর হার ১৫ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬৯৭ জন। এ নিয়ে দেশে আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ২৯ হাজার ৬৮ জন। সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৬২ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় মৃত সাতজনের মধ্যে চল্লিশোর্ধ্ব দুই, পঞ্চাশোর্ধ্ব এক, ষাটোর্ধ্ব এক, সত্তরোর্ধ্ব এক ও ৮০ বছরের বেশি বয়সী দুজন ছিলেন।

বিভাগওয়ারি হিসাবে দেখা গেছে, সাতজনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে তিন, চট্টগ্রামে দুই, খুলনায় এক ও রংপুর বিভাগে একজনের মৃত্যু হয়। বাকি চার বিভাগÑরাজশাহী, বরিশাল, সিলেট ও ময়মনসিংহে কভিডে কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি।

৬৪ জেলার মধ্যে তিন জেলায় একাধিক রোগী শনাক্ত হয়েছেন, ৩৫ জেলায় রোগী শনাক্ত হয়েছেন এক অঙ্কের ঘরে। আর দেশের ২৪ জেলায় কভিডে কেউ শনাক্ত হননি।

একাধিক রোগী শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ঢাকা মহানগরসহ ঢাকা জেলায় শনাক্ত হয়েছেন ৩৩১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলায় যথাক্রমে শনাক্ত হয়েছেন ১৩ ও ১৪ জন।

যে ২৪ জেলায় কভিডে রোগী শনাক্ত হয়নি তার মধ্যে রয়েছেÑঢাকা বিভাগের কিশোরগঞ্জ, মানিকগঞ্জ ও রাজবাড়ী; ময়মনসিংহ বিভাগের নেত্রকোনা; চট্টগ্রাম বিভাগের বান্দরবান, খাগড়াছড়ি, লক্ষ্মীপুর ও চাঁদপুর; রাজশাহী বিভাগের চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ ও জয়পুরহাট; রংপুর বিভাগের লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রাম; খুলনা বিভাগের বাগেরহাট, চুয়াডাঙ্গা, মাগুরা ও নড়াইল; বরিশাল বিভাগের বরিশাল, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, বরগুনা ও ঝালকাঠি এবং সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ ও হবিগঞ্জ। গত বছর ৮ মার্চ দেশে প্রথম তিনজনের দেহে কভিড শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯০  জন  

সর্বশেষ..