দিনের খবর প্রথম পাতা

কভিডে ২৪ ঘণ্টায় ৭৮ মৃত্যুর রেকর্ড

আক্রান্ত ৫৮১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে কভিডে এক দিনে ৭৮ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা এ পর্যন্ত সর্বাধিক। তবে নতুন রোগী শনাক্তের সংখ্যা ছয় হাজারের নিচে রয়েছে। গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর দেশে কভিড-১৯ সংক্রমণের সর্বশেষ পরিস্থিতি জানিয়ে যে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে, তাতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৮ জনের মৃত্যুর খবর দেয়া হয়।

এর আগে শনিবার এক দিনে ৭৭ জনের মৃত্যুর খবর দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ওইদিন পর্যন্ত সেটিই ছিল এক দিনে সর্বোচ্চ-সংখ্যক মৃত্যুর রেকর্ড, যা এক দিনের মাথায় ভেঙে গেল। নতুন ৭৮ জনের মৃত্যুতে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৭৩৯ জন।

গত ৩১ মার্চ ৫২ জনের মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এরপর থেকে দৈনিক মৃত্যু কখনোই ৫০-এর নিচে নামেনি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর গতকাল রোববার জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচ হাজার ৮১৯ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে, যা নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ছয় লাখ ৮৪ হাজার ৭৫৬ জন।

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে গত কয়েক দিন ধরেই দিনে ছয় হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়ে আসছিল। এর মধ্যে গত বুধবার রেকর্ড সাত হাজার ৬২৬ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় সেরে উঠেছেন চার হাজার ২১২ জন। তাদের নিয়ে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৭৬ হাজার ৫৯০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ছিল ১৯ দশমিক ৮১ শতাংশ। আর সর্বমোট নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ৬৯ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ২৪৮টি ল্যাবে ২৯ হাজার ৩৭৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ৫০ লাখ দুই হাজার ৮৬৫টি নমুনা। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৪ দশমিক ২০ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪২ শতাংশ।

গত এক দিনে যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ৫৩ জন পুরুষ আর নারী ২৫ জন। তাদের প্রত্যেকেই হাসপাতালে মারা গেছেন। মৃত্যুদের মধ্যে ৪৮ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি, ১৬ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছর, সাতজনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছর, ছয়জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছর এবং একজনের বয়স ১০ বছরের কম ছিল। মৃতদের মধ্যে ৪৭ জন ঢাকা বিভাগের, ২০ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, চারজন রাজশাহী বিভাগের, চারজন খুলনা বিভাগের, দুজন সিলেট বিভাগের এবং একজন রংপুর বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

দেশে এ পর্যন্ত মারা যাওয়া ৯ হাজার ৭৩৯ জনের মধ্যে সাত হাজার ২৭৯ জনই পুরুষ এবং দুই হাজার ৪৬০ জন নারী।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..