সুস্বাস্থ্য

কভিড-আক্রান্তরা ঘরে যা খাবেন

মহমারি কভিডের প্রকোপ বেড়েছে। আক্রান্ত অনেকেই চিকিৎসকের পরামর্শে বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ধরনের কভিড রোগীর জন্য দেয়া হলো ডায়েট চার্ট।

সকালের খাবার: এক. সকালে উঠেই খেতে পারেন বিস্কুট ও চা। পাউরুটি বা আটার রুটি দুই-তিন পিস, মাখন এক চা চামচ, পনির দুই টুকরা, ছানা আধা কাপ; দুই. সিদ্ধ ডিম একটি, সবজি এক বাটি (মাঝারি), কর্নফ্লেক্স বা দই এক বাটি; তিন. চিড়া বা মুড়ি মাখা (রসুন + পেঁয়াজ + কাঁচা মরিচ + দুই চা চামচ সরিষার তেল) এক বাটি, দুধ এক কাপ, মৌসুমি ফল আম, পেয়ারা, আপেল, পাকা পেঁপে, আনারস, মাল্টা প্রভৃতি। মধ্য দুপুরের খাবার: দুই পিস ক্র্যাকার বিস্কুট, ডাবের পানি বা লাচ্ছি বা গ্রিন টি-এক গ্লাস বা এক মগ।

দুপুরের খাবার: এক. পরিমাণমতো ভাত, ডাল এক বাটি; দুই. সবজি (গাজর, বরবটি, পটোল, ঝিঙা, লাউ প্রভৃতি রান্না) এক বাটি, শাক আধা বাটি; তিন. মাছ দুই টুকরা বা দেশি মুরগির মাংস দুই টুকরা (পাতলা ঝোল), সালাদ (শসা + পুদিনা পাতা + টমেটো + পেঁয়াজ কুচি + লেবুর রস + অঙ্কুরিত ছোলা + এক চিমটি লবণ) এক বাটি।

সন্ধ্যার খাবার: নুডলস (সবজি + ডিম) বা দুধ সেমাই বা সুজি এক বাটি। অথবা (দুই টেবিল চামচ দই + দুই টেবিল চামচ বেদানা + অর্ধেক আপেল + চারটি কাঠবাদাম + এক চা চামচ কিশমিশ আধা চা চামচ কালোজিরা) এক বাটি। আদা চা এক মগ।

রাতের খাবার: গরম চিকেন ক্লিয়ার স্যুপ (এক টুকরা মুরগির মাংস + গাজর + পেঁপে + লেমনগ্রাস) এক বাটি। দুই পিস রুটি অথবা ভাত এক কাপ। মুরগির মাংস দুই টুকরা বা মাছ দুই টুকরা সবজিসহ রান্না (পাতলা ঝোল)। অথবা পাতলা খিচুড়ি। রাতের খাবার একটু তাড়াতাড়ি খেয়ে নেবেন। শোয়ার আগে দুধ + এক চা চামচের চার ভাগের এক ভাগ হলুদ মিশিয়ে পান করুন।

পরামর্শ: সারা দিন প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। ভালো হয় উষ্ণ পানি পান করতে পারলে। অল্প তেলে খাবার রান্না করুন। বেশি ঝাল, মসলা দিয়ে তৈরি বা গুরুপাক খাবার একেবারে নয়। ডায়াবেটিস, কিডনি বা অন্য কোনো রোগের সমস্যা থাকলে সেই অসুখের নির্ধারিত খাদ্যতালিকা মেনে চলুন।

মাহবুবা চৌধুরী

পুষ্টিবিদ, ডায়েট প্লানেট বাংলাদেশ 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..