প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

‘কম দামে তেল বিক্রি আরও দীর্ঘদিন’

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বিশ্বের অন্যতম দুটি প্রধান ব্যাংকের দুই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, আরও দীর্ঘদিন কম মূল্যে তেল বিক্রি হবে। তার প্রভাব বিশ্বব্যাপী নানামুখী অর্থনীতিতে পড়বে। আন্তর্জাতিক তেলের বাজারে অনেক দিন থেকেই মন্দাভাব চলছে। তারা আশা করেছিলেন, শিগগিরই হয়তো এ অবস্থা কেটে যাবে। কিন্তু এখন হুশিয়ারি জারি করে বলছেন, তারা যতটা আশা করেছিলেন, তেলের বাজার তার চেয়ে বেশিদিন মন্দা থাকবে। হয়তো তা আগামী ১০ বছর। খবর আরব নিউজ।

যুক্তরাষ্ট্রের সিটিব্যাংকের প্রধান নির্বাহী ইড মর্সি এবং এইচবিসি ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান ফিলিপ খৌরি কুয়েতে অংশ নেওয়া এক সম্মেলনে এসব কথা বলেন। ব্যারেলপ্রতি তেলের দাম আগামী কয়েক বছর ৪০ থেকে ৬০ ডলারের মধ্যে থাকবে বলেও তারা মনে করেন।

ইড মর্সি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের তেলের বাজার থেকে উত্তর আমেরিকার সরে যাওয়া এ দরপতনের কারণ এবং এ মন্দা দীর্ঘস্থায়ী হওয়ার কারণ। উত্তর আমেরিকা এখন নিজেই তেল উৎপাদন ও পার্শ্ববর্তী দেশ কানাডা থেকে বিপুল পরিমাণ তেল আমদানি করে। ফলে মধ্যপ্রাচ্য থেকে তাদের আর তেল নিতে হয় না।

ফিলিপি খৌরিও ইড মর্সির সঙ্গে সুর মিলিয়ে বলেন, তেলের বাজারের এ দীর্ঘস্থায়ী মন্দাভাব আমাদের ব্যাংক খাতেও সুদূরপ্রসারী প্রভাব ফেলবে। ৩০ বছর ধরে ওই ব্যাংকে কর্মরত খৌরিও। তিনি তার অভিজ্ঞতার আলোকে বলেন, ওপেকের যে তেল উৎপাদন হ্রাসের সিদ্ধান্ত, তার সঙ্গে তিনি একমত নন।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সাল থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম পড়ে যায়। এরপর তেল রফতানিকারক দেশগুলোর সংগঠন ওপেক তেল উৎপাদন কমিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। এ বছরের জুনে এ সিদ্ধান্তের মেয়াদ ফের বাড়ানো হয়। এতেও তেলের দাম বাড়ছে না। যদিও বর্তমানে তেলের দাম ব্যারেলপ্রতি ৫০ ডলারে ওঠানামা করছে। এদিকে তেলের দাম কমে যাওয়ায় রফতানিকারক প্রধান দেশ সৌদি আরব বিকল্প অর্থনীতির দিকে ঝুঁকছে।