করলার দুটি নতুন জাত উদ্ভাবন করল হাবিপ্রবি

মো. রুবাইয়াদ ইসলাম, হাবিপ্রবি (দিনাজপুর): করলা বাংলাদেশের অন্যতম ফল জাতীয় সবজি। স্বাদে তিক্ত হলেও এটি অনেকের কাছে প্রিয় সবজি হিসেবে পরিচিত। করলা গাছের বৈজ্ঞানিক নাম Momordica charantia । এটি ঈঁপঁৎনরঃধপবধব পরিবারের অন্তর্ভুক্ত এক প্রকার লতা জাতীয় উদ্ভিদ।

সম্প্রতি হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) কৌলিতত্ত্ব ও উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের পিএইচডি গবেষক ফররুখ আহমেদের গবেষণায় এবং অধ্যাপক ড. মো. হাসানুজ্জামান ও অধ্যাপক ড. ভবেন্দ্র কুমার বিশ্বাসের তত্ত্বাবধানে তেতো স্বাদযুক্ত ও শরীর কাঁটার মতো ওয়ার্টে ভরা সবজিটির নতুন দুটি জাত উদ্ভাবন করা হয়েছে। নতুন উদ্ভাবিত জাত দুটির নাম দেয়া হয়েছে যথাক্রমে ‘ঐঝঞট-১’ ও ‘ঐঝঞট-২’।

গত বৃহস্পতিবার হাবিপ্রবির আই.আর.টির সেমিনার কক্ষে উক্ত গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম কামরুজ্জামান। বিশেষ অতিথি ছিলেন ট্রেজারার অধ্যাপক ড. বিধান চন্দ্র হালদার, পোস্ট গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. ফাহিমা খানম। অনুষ্ঠানটিতে আরও উপস্থিত ছিলেন উক্ত গবেষণা কার্যক্রমের সুপারভাইজার অধ্যাপক ড. মো. হাসানুজ্জামান,

কো-সুপারভাইজার অধ্যাপক ড. ভবেন্দ্র কুমার বিশ্বাস, কৌলিতত্ত্ব ও উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আরিফুজ্জামান, পরীক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল কালাম আজাদ, পরীক্ষা কমিটির সদস্য ড. আবু তাহের মাসুদ (সিএসও, বারি), কৃষি অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানসহ অন্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম কামরুজ্জামান তার বক্তব্যে শিগগির বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা সমৃদ্ধ করার প্রত্যয়ে ‘জিন ব্যাংক’ ও ‘প্রযুক্তি গ্রাম’ প্রতিষ্ঠার আশ্বাস দেন। এছাড়া কৃষি গবেষণা মাঠের উন্নয়ন, পাবলিক-প্রাইভেট নীতিমালা গ্রহণের বিষয়েও তিনি গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার কৃষিবান্ধব সরকার। তাই বাংলাদেশ

এখন কৃষিক্ষেত্রে বিশ্বে রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯১  জন  

সর্বশেষ..