স্পোর্টস

করোনাজয়ী ক্রিকেটার অপুর পরামর্শ

ক্রীড়া প্রতিবেদক: প্রাণঘাতী ভাইরাসের সঙ্গে দাপটের সঙ্গেই লড়লেন নাজমুল ইসলাম অপু। জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার সপরিবারে আক্রান্ত হয়েছিলেন করোনাভাইরাসে। হার মানেননি তিনি ও তার পরিবার। মা-বাবাসহ নাজমুল এখন করোনাজয়ী। সর্বশেষ পরীক্ষায় তাদের সবার টেস্টের ফল নেগেটিভ এসেছে।

নাগিন অপু নামে পরিচিত এই ক্রিকেটার। করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে জিতে সৃষ্টিকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞ তিনি। জানাচ্ছিলেন, ‘বাবা আর মাকে নিয়েই আমার বেশি দুশ্চিন্তা ছিল। কিন্তু আল্লাহর রহমতে আমরা সবাই এখন সুস্থ হয়ে উঠেছি। সবারই শারীরিক দুর্বলতা আছে। এখন সেটাই কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছি আমরা।’

করোনার দুঃসময়ে মানুষের পাশেই ছিলেন ক্রিকেটার অপু। দুস্থ মানুষকে করেছেন সাহায্য। নিজেও ছুটে গেছেন অসহায়দের পাশে। তখনই আক্রান্ত হন করোনায়। সঙ্গে তার মা-বাবা। এবার সেই ধাক্কা সামলে উঠল নারায়ণগঞ্জের এই ক্রিকেটার।

করোনা মুক্ত হয়ে এবার প্লাজমা দিয়ে ফের মানুষের পাশে দাঁড়াতে চান বাঁহাতি এই স্পিনার। জানালেন, ‘সামনেও মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। এখন প্রথম কাজ প্লাজমাটা দেওয়া। আমার প্লাজমা দিয়ে যদি দু-একজন সুস্থ হয় সেটিই হবে বড় পাওয়া।’

একইসঙ্গে নিজের অভিজ্ঞতা থেকে পরামর্শও দিলেন ৫ ওয়ানডে ও ১৩টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলা নাজমুল ইসলাম অপু। তিনি জানান, ‘দেখুন অবশ্যই খাওয়া-দাওয়া ঠিকমতো করতে হবে। করোনার সময়ে কোনো খাবারের স্বাদ নাকে লাগে না।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..