বিশ্ব সংবাদ

করোনা মোকাবিলায় ১০ নির্বাহী আদেশ বাইডেনের

শেয়ার বিজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ১০টি পৃথক নির্বাহী আদেশে সই করেছেন। ফেডারেল ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট বিভাগকে এক মাসের মধ্যে ১০০টি কমিউনিটি টিকাকেন্দ্র স্থাপনের নির্দেশ দেয়ার কথা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। তার প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১০০ দিনের মধ্যে ১০ কোটি মানুষকে টিকার আওতায় নিয়ে আসার পরিকল্পনার কথা জানানো হয়েছে। এদিকে বাইডেন রাশিয়ার সঙ্গে পরমাণু অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ চুক্তির মেয়াদ আরও ৫ বছর বাড়াতে আগ্রহী বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। খবর : বিবিসি ও রয়টার্স।

স্থানীয় সময় গত বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে বক্তব্য দেন জো বাইডেন। সেখানেই তিনি এসব কথা জানান। বাইডেন বলেছেন, কভিড-১৯-এর সংক্রমণে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের চেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়ে গেছে। তিনি বলেন, আজকের নাজুক অবস্থার সৃষ্টি যেমন এক দিনে হয়নি, তেমনি এ পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার জন্যও সময় লাগবে। তিনি জনগণকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ ঘটবেই। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আরও বলেছেন, ‘আমরা এ মহামারিকে পরাজিত করব।’

আগামী ফেব্রুয়ারিতেই যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃতের সংখ্যা পাঁচ লাখে পৌঁছাবে বলে আশঙ্কা করছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। আমেরিকানদের সতর্ক করে দিয়ে বাইডেন বলেছেন, করোনা মহামারি নিয়ে সামনে এখনও অনেক কঠিন দিন রয়েছে। পরিস্থিতি উন্নতির বদলে অবনতির দিকে যাচ্ছে। আগামী মাসেই মৃতের সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়াতে পারে।

জো বাইডেন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় তার প্রশাসনের ১০০ পৃষ্ঠার কৌশলপত্র অবমুক্ত করেন। মাস্ক ব্যবহারের বাধ্যবাধকতা বৃদ্ধি, টিকা সরবরাহ ত্বরান্বিত করা, টেস্টিং বাড়ানো ও অন্যান্য জনস্বাস্থ্যবিষয়কে এ কৌশলপত্রে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে।

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল স্থানীয় ফার্মেসিগুলোর মাধ্যমে সাধারণ জনগণকে সহজে টিকা দেয়ার ব্যবস্থা করেছে। টিকা দিতে ফেডারেল জনস্বাস্থ্য বিভাগে বিপুল স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দেয়ার কথাও জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের কোনো দেশ থেকে প্রবেশের জন্য করোনা নেগেটিভ সনদসহ অন্যান্য সতর্কতামূলক পদক্ষেপের নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

জো বাইডেন বলেন, যুদ্ধকালীন জরুরি অবস্থা বিবেচনা করে চলমান মহামারি পরিস্থিতি মোকাবিলা করা হবে। করোনা মহামারি মোকাবিলায় শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসিকে প্রশাসনে যুক্ত করেছেন বাইডেন।

ফাউসি জানান, ‘গ্রীষ্মকালের মধ্যে সত্তর থেকে আশি শতাংশ আমেরিকার মানুষকে টিকা কর্মসূচির আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হবে। এমনটা হলে এ বছরের শেষ দিকে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে।’

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মধ্যকার নিউ স্টার্ট অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ চুক্তি অনুযায়ী, দুই দেশ এক হাজার ৫৫০টির বেশি নিউক্লিয়ার ওয়ারহেড মজুত রাখতে পারে না। আগামী ৫ ফেব্রুয়ারি এ চুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে। জো বাইডেন প্রশাসন এখন এই চুক্তির মেয়াদ ২০২৬ সাল পর্যন্ত বাড়াতে চায়।

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ২০ জানুয়ারি শপথ নিয়েছেন জো বাইডেন। একই দিনে বিদায় নিয়েছেন আলোচিত-সমালোচিত ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রথম কর্মদিবসেই ১৭টি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেন বাইডেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..