প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

কলকাতায় চালু হবে দুই হাজার ইলেকট্রিক বাস

শেয়ার বিজ ডেস্ক: শিগগির ভারতের কর্ণাটক অঙ্গরাজ্যের রাজধানী বেঙ্গালুরুতে চালু হবে এক হাজার ইলেকট্রিক বাস। দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের ‘গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জ’ প্রকল্পের অধীনে এই পরিষেবা চালু হচ্ছে। এজন্য দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা কনভার্জেন্স এনার্জি সার্ভিসেস লিমিটেড (সিইএসএল) সম্প্রতি পাঁচ হাজার ৫০০ কোটি রুপির দরপত্র ডেকেছে। এর অধীন কেনা হবে পাঁচ হাজার ৫৮০টি বৈদ্যুতিক বাস। এর মধ্যে রয়েছে ১৩০টি দোতলা বাস। খবর: হিন্দুস্তান টাইমস।

এ প্রকল্পের আওতায় বেঙ্গালুরুর পর কলকাতায়ও চালু হবে ইলেকট্রিক বাস এবং সংখ্যাটি অন্যান্য শহরের চেয়ে বেশি হবে। এখানে দুই হাজার পরিবেশবান্ধব ইলেকট্রিক বাস চালু করার সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে দিল্লি, হায়দরাবাদ ও সুরাটের রাস্তায় নামানো হবে যথাক্রমে এক হাজার ৫০০টি, ৩০০টি ও ১৫০টি বাস।

গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জের অধীন ভারতের ৯টি শহরে (যেখানকার জনসংখ্যা ৪০ লাখের বেশি) এ ধরনের বাস চালু হওয়ার কথা থাকলেও প্রাথমিক পর্যায়ে উল্লিখিত পাঁচ শহরে চালু হচ্ছে এই পরিষেবা। এ প্রসঙ্গে সিইএসএলের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘এর ফলে শহরে চলাচলের খরচ হ্রাস পাবে। রাষ্ট্রীয় পরিবহনের উদ্যোগে ই-বাস সংগ্রহে বাধা দূর হবে।

অন্যদিকে বেঙ্গালুরু মেট্রোপলিটন ট্রান্সপোর্ট করপোরেশনও (বিএমটিসি) একই ধরনের বাস কেনায় আগ্রহ দেখিয়েছে। বিএমটিসির ম্যানেজিং ডিরেক্টর ভি আনবু কুমার এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা আগামী তিন বছরের মধ্যে এক হাজার ৫০০টি নন-এসি লো-ফ্লোর বাস চালু করার পরিকল্পনা করছি। এগুলো ভাড়া নেয়ার বদলে আমরা কিনতে বেশি ইচ্ছুক। বেসরকারি সংস্থার তুলনায় আমাদের রয়েছে অধিক অভিজ্ঞ চালক ও কর্মী। আমরা এ প্রসঙ্গে সিইএসএলের সঙ্গেও আলোচনা করছি।’ তিনি জানান, কভিড-১৯ মহামারির পর থেকে ভারতে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাসের চাহিদা কমেছে।

প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় সরকার ইলেকট্রিক বাসপ্রতি ৫৫ লাখ টাকা ভর্তুকি দিচ্ছে। কিন্তু রাজ্যগুলো এখন পর্যন্ত এই ভর্তুকির বিপরীতে মুনাফাসংক্রান্ত কোনো প্রতিশ্রুতি দেয়নি।