স্পোর্টস

কাতার চ্যালেঞ্জে প্রস্তুত বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক: হতাশা ভুলে ফের জয়ের ছন্দে বাংলাদেশ ফুটবল দল। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে আফগানিস্তানের কাছে হারের ধাক্কা সামলে দেশের মাঠেই আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিয়েছে জামাল ভূঁইয়ার দল। ভুটানের বিপক্ষে দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচেই দল পেয়েছে অনায়াস জয়। প্রথমটিতে ৪-১ গোলে ভুটানকে উড়িয়ে দেয় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যবধানটা ২-০।
গত বৃহস্পতিবার রাতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ভুটানের বিপক্ষে দুটি গোলই করেছেন ইয়াসিন খান। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে দুই ধাপ এগিয়ে থাকা ভুটানের (১৮৫তম) বিপক্ষে জয়ের তৃপ্তি নিয়েই এবার লড়বে কাতারের সঙ্গে।
ভুটানকে উড়িয়ে এখন কাতারের অপেক্ষায় বাংলাদেশ। ১০ অক্টোবর ঢাকায় মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির সঙ্গে লড়াই। ‘ই’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে কাতার সঙ্গে লড়াইয়ের আগে প্রস্তুতিটা ভালোই হলো। এরপরই কলকাতায় বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। তার আগে দলের প্রস্তুতিতে খুশি কোচ জেমি ডে।
যদিও গত পরশু রাতে ভুটানের বিপক্ষে গোল মিসের মহড়াও দিয়েছেন বাংলাদেশের ফরোয়ার্ডরা। রক্ষণভাগের ফুটবলার ইয়াসিনের জোড়া গোল দল পেয়েচে জয়। তারপরও বাংলাদেশ দলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে ইতিবাচক অনেক কিছুই পেলেন। কোচ বলেন, ‘দেখুন, মাঠে কে গোল দিল সেটা আমার কাছে বিষয় না। আমার দল গোল পেয়েছে। ম্যাচ জিতেছে। ক্লিনশিট রেখে মাঠ ছেড়েছে। এটিই ৯০ মিনিট শেষে আমার কাছে বড় বিষয়।’
গোলকিপার আশরাফুল ইসলাম রানার জায়গায় পোস্টের নিচে ফিরে দক্ষতা দেখালেন শহীদুল আলম সোহেল। জাল অক্ষত রাখলেন। ব্যাপারটায় খুশি কোচ জেমি ডে।
তবে এটাও ঠিক ব্যবধানটা আরও বড় হতে পারত। একইভাবে শুরুতে দলও তেমন করে আক্রমণাত্মক হতে পারেনি। এ নিয়ে জেমি ডে জানাচ্ছিলেন, ‘প্রথমার্ধে হয়তো ছেলেরা আরও ভালো খেলতে পারত। আমার মনে হয় ক্লান্তির কারণে হয়তো হয়নি। সুযোগ পেয়েছিল ছেলেরা কিন্তু মাত্র একটি গোল হয়েছে। অবশ্য দ্বিতীয়ার্ধে দল ভালো খেলেছে, আমি দলের পারফরম্যান্সে খুশি। এ জয়ের তৃপ্তি আমাদের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে কাতার ও ভারত ম্যাচে কাজে লাগবে।’
ম্যাচে দুটো গোল করে জয়ের নায়ক ডিফেন্ডার ইয়াসিন খান। দীর্ঘদিন পর জাতীয় দলের হয়ে গোল পেয়ে দারুণ খুশি তিনি। বলেন, ‘সত্যি বলতে কী অনেক দিন পর গোল পেয়েছি। দল আমার গোলে জিতেছে। আমি দারুণ খুশি। মাঝে ইনজুরির কারণে ভালো খেলতে পারিনি। এবার নিজেকে নতুন রূপে ফিরে পেয়ে ভালো লাগছে। এভাবেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখে এগিয়ে যেতে হবে।’
সন্দেহ নেই ১০ অক্টোবর কঠিন চ্যালেঞ্জ। কারণ কাতার বেশ শক্তিশালী এক প্রতিপক্ষ। যারা বিশ্বকাপ ২০২২ এর আয়োজকও। তাদের চমকে দেওয়া সহজ নয়। তবে ঘরের মাঠে আত্মবিশ্বাসী জেমি ডের দল ইতিবাচক ফুটবল উপহার দিতে প্রস্তুত।

সর্বশেষ..