প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

কাতার বিশ্বকাপে স্বেচ্ছাসেবক হচ্ছেন মোশারফ

ক্রীড়া ডেস্ক : আগামী ২১ নভেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে কাতারে পর্দা ওঠছে ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের। আর এই বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করে সারা বিশ্ব থেকে স্বেচ্ছাসেবক নেওয়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল ফিফা। এদিকে, স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে নির্বাচিত হয়ে সাক্ষাৎকারের জন্য বাংলাদেশ থেকে ডাক পেয়েছেন শেরপুরের মোশারফ হোসাইন।

ফেডারেশন ইন্টারন্যাশনাল অফ ফুটবল এসোসিয়েশন (ফিফা) থেকে মোশারফ হোসাইনকে পাঠানো এক ই-মেইল বার্তায় তারা লিখেছেন, আমরা আপনার সঙ্গে দেখা করার জন্য উৎসুক।

জানা গেছে, আগামী মাসে সাক্ষাৎকার পর্ব শেষে মোশারফ হোসাইন পর্যায়ক্রমে অংশ নেবেন রুল অফার, শিফট সিলেকশন, ট্রেনিং, ইউনিফর্ম এবং স্বীকৃতি ও বিশ্বকাপ আসরের মূল পর্বে।

মোশারফ হোসাইন একজন ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক ও স্বেচ্ছাসেবক। শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলে বেড়ে ওঠা এই তরুণ ছোটবেলা থেকেই স্বেচ্ছাসেবী কাজ ও সাংবাদিকতার সঙ্গে জড়িত। করোনাকালীন সময়ে বেদে জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়িয়ে প্রশংসিত হন তিনি। পরে তাকে হিডেন হিরো স্বীকৃতি দেয় আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ। ‘মোশারফ হেল্পস দ্য স্নেক চারমার কমিউনিটি’ শিরোনামে যৌথভাবে প্রতিবেদন প্রকাশ করে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ ও দ্য ডেইলি স্টার।

১৪ ও ১৫তম আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উৎসব বাংলাদেশের প্রেস এন্ড মিডিয়া বিভাগের টিম লিডার (স্বেচ্ছাসেবক) হিসেবেও কাজ করেছেন এই তরুণ। এছাড়া দেশের জাতীয় গণমাধ্যমে মোশারফ হোসাইনের লেখা অনেক ফিচার প্রতিবেদন প্রশংসা কুড়িয়েছে। ফিফা কাতার বিশ্বকাপে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে এই তরুণ কাজের সুযোগ পাবেন ‘মিডিয়া ক্যাটাগরিতে’।

মোশারফ হোসাইন বলেন, ফিফার কাছে বেশ কিছু পরীক্ষা দিয়ে কাতার যাওয়ার আমন্ত্রণ পেয়েছি। বাংলাদেশ থেকে কতজন অংশ নিচ্ছে সেটা এখনও জানতে পারিনি, তবে কাতারে থাকা অনেক প্রবাসী বাংলাদেশির সঙ্গে কথা হয়েছে; তারা অনেকেই অংশ নিচ্ছে।

আরও জানান, পৃথিবীর সবচেয়ে বড় এই আসরে দেশ থেকে অংশ নিতে পারলে বাংলাদেশকেও বিশ্ব দরবারে উপস্থাপন করতে পারবো। তবে আমি যেহেতু এখনও একজন শিক্ষার্থী সেই হিসেবে যাতায়াতে জটিলতা তো আছেই। এ সময় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনসহ (বাফুফে) ক্রীড়ার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পাশে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।