Print Date & Time : 25 October 2020 Sunday 5:36 am

কানাডার অ্যালুমিনিয়ামে ফের যুক্তরাষ্ট্রের শুল্কারোপ

প্রকাশ: August 8, 2020 সময়- 01:49 am

শেয়ার বিজ ডেস্ক: কানাডা থেকে আমদানি করা কিছু অ্যালুমিনিয়াম পণ্যের ওপর নতুন করে ১০ শতাংশ শুল্কারোপ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত বৃহস্পতিবার এ শুল্কারোপ করা হয়েছে। মার্কিন শিল্প রক্ষার জন্য এটি করা হয়েছে বলে জানান তিনি। খবর: বিবিসি।

এর আগে জাতীয় সুরক্ষার কথা বলে ২০১৮ সালে ইস্পাতের ওপর ২৫ শতাংশ ও অ্যালুমিনিয়ামের ওপর ১০ শতাংশ শুল্কারোপ করেছিলেন ট্রাম্প। পরে গত বছর ওই শুল্ক উঠিয়ে নেওয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে একটি চুক্তিতে পৌঁছেছিল কানাডা।

প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্র–ডো সম্প্র্রতি বলেন, তিনি বিশ্বাস করেন যে একটি নতুন শুল্কারোপের কোনো যৌক্তিকতা নেই। তবে গতকাল ভিন্ন কথায় বলেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওহাইওতে তিনি বলেন, ‘মার্কিন অ্যালুমিনিয়াম শিল্পকে রক্ষার জন্য শুল্কেও প্রয়োজনীয়তা ছিল, কারণ কানাডার উৎপাদকেরা সস্তা পণ্য দিয়ে মার্কিন বাজারে সয়লাব না করার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, তা ভঙ্গ করেছেন। এ পদক্ষেপ আমাদের অ্যালুমিনিয়াম শিল্পকে রক্ষা করার জন্য একেবারে  প্রয়োজনীয় ছিল।’

গত বছরের মে মাসে কানাডা ও মেক্সিকোর ওপর শুল্কারোপ প্রত্যাহার করে ত্রিদেশীয় বাণিজ্য চুক্তির চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় যুক্তরাষ্ট্র। চুক্তি অনুযায়ী বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা সব সময় আমদানি পর্যবেক্ষণ করবে। যদি কোনো দেশ খুব বেশি পরিমাণে কেনার বিষয়ে এগিয়ে যায়, তবে অপর দেশ পরামর্শক নিয়োগ করতে পারবে এবং শুল্ক আবার আরোপ করতে পারে।

এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানায়, যুক্তরাষ্ট্রে কানাডার অ্যালুমিনিয়াম রপ্তানির বৃহত্তম অংশ হিসেবে আমদানি ঐতিহাসিক স্তরের ওপরে চলে গেছে। বিবৃতিতে বলা হয়, মার্কিন চাহিদা কমা সত্ত্বেও সাম্প্রতিক মাসগুলোয় এ উত্থান তীব্র হয়েছে। এর আগে এ আমদানি ঐতিহাসিক স্তরেই থাকবে চুক্তিতে এমনটাতেই সম্মত ছিল কানাডা।

যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো-কানাডার মধ্যে শুল্ক বিরোধ নিরসনে গত বছর ইউএসএমসিএ নামে একটি বাণিজ্যচুক্তি স্বাক্ষর হয়। শুক্রবারের সমঝোতা অনুযায়ী, নর্থ আমেরিকান ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট (নাফটা) চুক্তিটি ইউএসএমসিএ’র (ইউএস-মেক্সিকো-কানাডা এগ্রিমেন্ট) স্থলাভিষিক্ত হলো। বিশ্লেষকদের দাবি, চুক্তিটি এখন উত্তর আমেরিকাতে বাণিজ্য সম্প্রসারণের জন্য এক নতুন যুগের উদ্বোধন করে, যা শেষ সীমারেখাটি অতিক্রমের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী বৈষম্য বাড়ায়। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বিভিন্ন দেশে এ শুল্কারোপের বিষয়ে এতটাই আগ্রহী যে অনেক সময় তিনি নিজেকে একজন ‘ট্যারিফ ম্যান’ বা ‘শুল্ক মানব’ বলেও ডাকেন।