সারা বাংলা

কিশোরগঞ্জে বিদ্যালয় মাঠ রক্ষার দাবি শিক্ষার্থীদের

প্রতিনিধি, নীলফামারী: নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ভেড়ভেড়ী মাঝাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। গতকাল সোমবার জেলা শহরের চৌরঙ্গী মোড় স্মৃতি অম্লান চত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, একই মাঠে প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ভেড়ভেড়ী মাঝাপাড়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ অবস্থিত। দুটি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীর খেলাধুলার একমাত্র মাঠটিতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি বহুতল ভবন নির্মাণের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হয়েছে। মাঠে ভবন নির্মিত হলে তাদের খেলাধুলার স্থান থাকবে না।
উপজেলার পুঠিমারী ইউপির সাবেক সদস্য মকছুদার রহমান জানান, বিদ্যালয়ের মাঠটি অত্র এলাকার ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠ। এ মাঠে দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ছাড়াও এলাকার শিশু-কিশোররা খেলাধুলা করে আসছে। বিদ্যালয় চত্বরে ভবন নির্মাণের বিকল্প স্থান থাকলেও মাঠ বন্ধ করে ভবন নির্মাণের সিদ্ধান্তে এলাকার মানুষ ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। ওই সিদ্ধান্ত বাতিল করে ভবনটি বিকল্প স্থানে নির্মাণের দাবি জানান তারা।
ভেড়ভেড়ী মাঝাপাড়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র মেহেদী হাসান ও আশেকুল ইসলাম জানায়, শিক্ষার্থীদের বিকশিত হওয়ার জন্য লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা জরুরি। বিদ্যালয় চত্বরে বিকল্প স্থান থাকলেও কর্তৃপক্ষ মাঠের মাঝখানে ভবন নির্মাণ করে খেলাধুলার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে।
মানববন্ধন শেষে ভেড়ভেড়ী মাঝাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অভিভাবক আবুল আলা মওদুদীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ভেরভেরী মাঝাপাড়া গ্রামের আহসানুল আরেফিন, ফয়জুল ইসলাম, আবদুল মতিন, ভেড়ভেড়ী মাঝাপাড়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী মো. জয় ও রিপন প্রমুখ। পরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।ং
প্রধান শিক্ষক আবদুল হাই জানান, বিদ্যালয় মাঠে ভবন নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হবে। এতে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা বন্ধ হওয়ার কথা নয়। তবে এক শ্রেণির মানুষ উন্নয়ন কাজে বাধা সৃষ্টি করছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তদন্ত করে ভবন নির্মাণের মতামত দিয়েছেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, তিনি এ বিষয়ে কিছুই জানেন না। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা প্রকৌশলী বিষয়টি বলতে পারবেন।
জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন জানান, মাঠটি রক্ষা করে ভবন নির্মাণ করা যায় কি না, সে বিষয়টি দেখবেন তিনি।

সর্বশেষ..