সম্পাদকীয়

কিশোরদের বিকাশে সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিত করুন

রাজধানীসহ সারা দেশে ভয়ঙ্কর অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে কিশোররা। গত কয়েকদিনে গণমাধ্যমে কিশোর অপরাধ নিয়ে প্রকাশিত খবরের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। গতকাল একটি দৈনিকের খবরে বলা হয়েছে, বিভিন্ন নামে শতাধিক গ্রুপের কয়েক হাজার কিশোর এখন রাজধানী দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। যাদের অনেকেই নানা অপরাধে জড়িত। ঢাকার শিশু আদালতের বিচারিক কার্যক্রমের নথি অনুযায়ী গত ১৫ বছরে রাজধানীতে কিশোর গ্যাং কালচার ও সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে ৮৬টি খুনের ঘটনা ঘটেছে। ভবিষ্যতের কর্ণধারদের এমন অধঃপতনে সাধারণ মানুষের উদ্বেগ উৎকণ্ঠা বাড়ছে।
প্রাপ্ত বয়স্কদের দ্বারা সংঘটিত যেসব কাজ অপরাধ হিসেবে গণ্য, একই কাজ অপ্রাপ্ত বয়স্ক বা কিশোরদের দ্বারা সংঘটিত হলে সেটিকে কিশোর অপরাধ বলা হয়। অধিকাংশের বয়স ১৮ বছরের নিচে হওয়ায় দণ্ডবিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে পারে না আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তাদের আটক করে শিশু-কিশোর সংশোধনাগারে পাঠাতে হয়। অথচ কিশোর বয়সের চাহিদা হলো নিজেকে প্রকাশ করা। এ আকাক্সক্ষাকে যদি মাতা-পিতা, শিক্ষক, অভিভাবক সঠিক পথে পরিচালনা করেন তবে শিশুরা ভবিষ্যৎ জীবনে সফল মানুষ হয়। পাশাপাশি পারিপার্শ্বিক পরিবেশ কিশোরদের মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠার মতো উপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে।
আমরা জানি, কোনো মানুষই অপরাধী হয়ে জš§ায় না। পরিবেশের নেতিবাচক প্রভাবে অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে। শিশুরা পরিবার থেকে প্রথমে শেখে। কিশোরের ব্যক্তিত্ব বিকাশে এবং কিশোর অপরাধ প্রতিরোধে একটি সুসংহত পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের দায়িত্ব অপরিসীম।
সব মা-বাবা সন্তানকে মানুষ করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন। এমনকি যে মা-বাবা ব্যস্ততার জন্য সন্তানকে সময় দিতে পারে না, তারাও সন্তানের ভবিষ্যৎ স্বস্তিকর করতেই ব্যস্ত বলে আমাদের ধারণা। আমরা ভাবতেই পারি না সন্তানের কোন ধরনের ক্ষতি তাদের কাম্য। তবুও মনে করি, সাম্প্রতিক সময়ে যে শিশু-কিশোররা বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে, সেটির দায় এড়াতে পারে না পরিবার। শিশুর কাজে মা-বাবার দৃষ্টিভঙ্গিই প্রতিফলিত হয়। একেবারে শিশুকাল থেকেই সন্তানকে নৈতিকতা, শৃঙ্খলা ও পরিমিতি বোধে অভ্যস্ত করতে তুলতে হবে। পরিবারে এগুলোর চর্চা থাকলে শিশু অভ্যস্ত হয়ে উঠবেই।
প্রত্যেক শিশুকে সুষ্ঠুভাবে বেড়ে ওঠার জন্য মূল দায়িত্ব পালন মা-বাবার। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে জরুরি সেবার হটলাইনে অভিযোগ পেয়ে রাজধানীর হাতিরঝিল এলাকা থেকে শতাধিক কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। খবর নিলে জানা যাবে, মা-বাবার উদাসীনতাই এদের বখাটেপনার জন্য দায়ী। জীবনের জটিল বাস্তবতা বোঝার জ্ঞান ও যোগ্যতা কিশোরদের নেই। কিশোর অপরাধ নিয়ন্ত্রণে পরিবারের ভূমিকাই বেশি। পরিবারের সদস্যদের মধ্যে সমস্যা থাকলে তার প্রভাব শিশুটির ওপর পড়তে বাধ্য।

সর্বশেষ..