প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

কীর্ত্তনখোলায় ট্যাংকার-কার্গো সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্ত কমিটি  

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বরিশালে কীর্ত্তনখোলা নদীতে ট্যাংকার ও কার্গোর সংঘর্ষের ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। বরিশাল জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে গত শুক্রবার রাতে এ কমিটি গঠন করা হয়। আগামী সাত দিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। খবর পরিবর্তন ডটকম।

জেলা প্রশাসক ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান জানান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আহসান হাবিবকে প্রধান করে এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ট্যাংকারের ধারণক্ষমতা ১৩ লাখ লিটারের বেশি। এতে ১০টি চেম্বার রয়েছে। এর মধ্যে প্রথম চেম্বারটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ওই চেম্বারে এক লাখ ৩২ হাজার লিটার ডিজেল ছিল। চেম্বারের উপরিভাগ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় খুব বেশি ডিজেল নির্গত হতে পারেনি। বর্তমানে ট্যাংকারটি বরিশালের চানমারি ও কার্গোটি চরকাউয়া পয়েন্টে নৌ-পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

এর আগে শুক্রবার সাড়ে ১২ লাখ লিটার জ্বালানি বোঝাই করে এমটি ফজর বরিশাল যমুনা অয়েল ডিপোর উদ্দেশে যাচ্ছিল। অপরদিকে ভারত থেকে এক হাজার ৬৪ মেট্রিক টন ফ্লাইঅ্যাশ বোঝাই করে এমভি মা-বাবার দোয়া-২ নামে একটি কার্গো ঢাকার উদ্দেশে আসছিল। সকাল সাড়ে ৮টায় বরিশাল নদীবন্দর সংলগ্ন কীর্ত্তনখোলা নদীর মুক্তিযোদ্ধা সংলগ্ন পয়েন্ট এলাকা অতিক্রম কালে তেলবাহী ট্যাংকার ও কার্গোটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে নৌযান দুটির সামনের অংশ বিধ্বস্ত হয়। অয়েল ট্যাংকারের সামনের অংশের তলা ফেটে বিপুল পরিমাণ তেল নদীতে ভেসে যায়।