কুয়েতের বৃহত্তম তেল শোধনাগারে আগুন

শেয়ার বিজ ডেস্ক: কুয়েতের বৃহত্তম তেল শোধনাগার মিনা আল আহমাদিতে আগুন লেগেছে। স্থানীয় সময় গতকাল সোমবার রাষ্ট্রায়ত্ত এ তেল শোধানাগারটিতে আগুন লাগে। এতে বেশ কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। খবর: খালিজ টাইমস, রয়টার্স।

প্রতিবেদনে কুয়েত ন্যাশনাল পেট্রোলিয়াম কোম্পানি (কেএনপিসি) জানিয়েছে, সোমবার কুয়েতের উপকূলীয় জেলা ফাহাহিলের ওই তেল শোধনাগারটিতে আগুন লাগে। এতে সেখানকার কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছেন, তবে কোনো প্রাণহানি হয়নি।

ঠিক কী কারণে আগুনের সূত্রপাত হলো, তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা আগুন নেভাতে তৎপর রয়েছে বলে জানিয়েছে কেএনপিসি। দমকলবাহিনী কয়েক ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়ছে। অনেককে নিকটবর্তী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।

মিনা আল আহমাদি কুয়েতের সরকারি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠার পর থেকে দীর্ঘদিন কুয়েতের অভ্যন্তরীণ বাজারে ২৫ হাজার ব্যারেল পরিশোধিত জ্বালানি সরবরাহ করে আসছিল এ শোধনাগারটি। সম্প্রতি এটির উৎপাদনক্ষমতা বাড়িয়ে তিন লাখ ৪৬ হাজার ব্যারেলে উন্নীত করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে কুয়েতের বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, সোমবারের অগ্নিকাণ্ডের কারণে শোধনাগারটির দৈনিক পরিশোধিত তেল উৎপাদনে তেমন প্রভাব পড়বে না।

কুয়েতের বিদ্যুৎ উৎপাদন ও পানি সরববরাহ ব্যবস্থা প্রায় সম্পূর্ণ জ্বালানি তেলভিত্তিক। আগুনের কারণে বিদ্যুৎ উৎপাদন ও পানি সরবরাহে কোনো প্রভাব পড়বে না বলেও জানিয়েছে দেশটির সরকার।

কেএনপিসি এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, অগ্নিকাণ্ডের কারণে তেল শোধনাগারের কার্যক্রম এবং রপ্তানি ক্ষেত্রে কোনো ধরনের প্রভাব পড়েনি।

উপকূলীয় ফাহাহেল জেলার বাসিন্দারা বড় ধরনের বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পেয়েছেন। অনেকেই সামাজিক মাধ্যমে ঘটনাস্থলের বিভিন্ন ফুটেজ প্রকাশ করেছেন।

৪১ লাখ জনসংখ্যার দেশ কুয়েত বিশ্বের ষষ্ঠ বৃহত্তম তেল মজুতকারী দেশ। ১০ দশমিক পাঁচ বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে মিনা আল-আহমাদি শোধনাগারের অবস্থান। ১৯৪৯ সালে এ শোধনাগারের কার্যক্রম শুরু হয়।

এর আগে ২০০০ সালের জুনে গ্যাস লিক হয়ে মিনা আল-আহমাদি শোধনাগারে ভয়াবহ ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটে। সে সময় কমপক্ষে চারজন নিহত এবং আরও ডজনখানেক মানুষ আহত হয়। ২০০৮ সালেও সেখানে একই ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে। তবে সে সময় খুব দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।


সর্বশেষ..