কৃষকদের ধর্মঘটে অচল ভারত

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে ‘ভারত বনধ’ কর্মসূচিতে ফের সক্রিয় ভারতের। বিক্ষোভ কর্মসূচি অচল হয়ে পড়েছে ভারতে পরিবহন ব্যবস্থা। গতকাল সোমবার সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত এ কর্মসূচিতে দিল্লি-মিরাট মহাসড়কে হাজার হাজার কৃষক অংশ নেয়। এতে দিল্লি সীমান্তে দুই কিলোমিটার রাস্তায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এ ধর্মঘটে নেতৃত্ব দিচ্ছে ৪০টি খামারি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত কিষাণ মোর্চা-এসকেএম। খবর: এনডিটিভি।

আন্দোলনকারীরা জানিয়েছেন, জাতীয় মহাসড়কের কিছু অংশে তারা যান চলাচল করতে দেবেন না। এ অবস্থায় দিল্লি সড়ক অচল হয়ে পড়েছে। এতে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে।

দেশজুড়ে সরকারি-বেসরকারি শিক্ষা ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠান, দোকান, শিল্পকারখানা এবং বাণিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধের ডাক দেয় সংগঠনটি। এ বনধকে সমর্থন করেছে বাম, কংগ্রেস, সমাজবাদী পার্টি, আম আদমি পার্টি, টিডিপির মতো বিরোধী দলগুলো। কৃষি আইনের বিরোধিতায় জাতীয় স্তরে বিভিন্ন জায়গায় বনধ পালন করছেন কৃষকরা। প্রভাব পড়েছে কলকাতাতেও।

কৃষকরা ইতোমধ্যেই দিল্লি থেকে উত্তরপ্রদেশে যাওয়ার সড়ক বন্ধ করে দিয়েছেন। দিল্লি-মিরাট হাইওয়েতেও বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন তারা। দিল্লি-হরিয়ানা সড়কও বন্ধ করেছেন আন্দোলনকারীরা।

পাঞ্জাব ও হরিয়ানা সীমানাও তারা বন্ধ করে অবস্থান করছেন অনেকে। এদিকে নিরাপত্তার কথা ভেবে লালকেল্লার সামনে রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ।

কৃষক নেতা শরণ সিং বলেছেন, দিল্লির সীমানায় কৃষক নেতারা প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। সরকার তাদের কথা শুনছে না। তাই তারা ভারত বনধ ডাকতে বাধ্য হয়েছেন। কর্মসূচি বিকাল ৪টা শেষ হয়। আন্দোলনকারীরা বিজেপি সরকারের করা তিনটি আইন বাতিলের দাবি জানিয়ে আসছেন। কৃষকদের আশঙ্কা, এই আইনের ফলে ন্যূনতম মূল্য সহযোগিতা বন্ধ করে দেয়া হবে।

সর্বশেষ..