কৃষকদের ‘রেল রোকো’ কর্মসূচিতে ভারতে বিপর্যস্ত ট্রেন চলাচল

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ভারতের উত্তর প্রদেশের লখিমপুর খেরিতে চার কৃষকসহ আটজন নিহত হওয়ার প্রতিবাদে কৃষকদের আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। কৃষক হত্যার বিচারের দাবিতে গতকাল সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ‘রেল রোকো’ কর্মসূচি পালন করেন তারা। কৃষকদের রেলপথ অবরোধে সারাদেশে অন্তত ১৬০টি ট্রেন আটকে পড়ে। বাতিল করা হয় একাধিক ট্রেন। খবর: এনডিটিভি, ইন্ডিয়া টুডে।

পাঞ্জাব থেকে শুরু করে অন্যান্য রাজ্যেও কৃষকদের রেলপথ অবরোধ করতে দেখা গেছে। দেশটির এক রেল কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ফিরোজপুর বিভাগের চারটি স্টেশন অবরুদ্ধ করে রাখেন আন্দোলনকারী কৃষকরা।

দেশটির কৃষক আন্দোলনের নেতৃত্ব দেয়া ৪০টি ইউনিয়নের সমন্বয়ে গঠিত জোট সংযুক্ত কিষান মোর্চার (এসকেএম) দাবি, সারাদেশে তারা শান্তিপূর্ণভাবে ‘রেল রোকো’ কর্মসূচি পালন করে সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। উত্তর প্রদেশের লখিমপুরে সহিংসতার প্রতিবাদে তাদের এ কর্মসূচি পালন।

কৃষক আন্দোলনকারীদের অবরোধের জেরে পাঞ্জাবের ফিরোজপুর-লুধিয়ানা, ফিরোজপুর-ফাজিলিকা শাখায় রেল চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। উত্তর রেল জানাচ্ছে, ভিওয়ানি-রেওয়ারি, সিরসা-রেওয়ারি, লোহারু-হিসার ও সিরসা-ভাতিন্ডার মতো বেশ কিছু শাখায় অবরোধের কারণে ট্রেন চলেনি। চণ্ডীগড়-ফিরোজপুর এক্সপ্রেস অবরোধে আটকে পড়ে।

ভারতের তিনটি বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন দেশটির কয়েক লাখ কৃষক। সরকারের সঙ্গে কয়েক দফা বৈঠকের পরও বিষয়টির সুরাহা হয়নি। এর মাঝে কৃষককে গাড়ি চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ ওঠে মন্ত্রীপুত্র আশিস মিশ্রের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় উচ্চ আদালত উত্তর প্রদেশ সরকারকে নির্দেশ দেন কৃষক নিহত হওয়ার ঘটনায় যেই জড়িত থাকুক তাকে গ্রেপ্তার করার।

ভারতীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সম্প্রতি লখিমপুর খেরিতে কৃষকরা বিক্ষোভ করার সময় একটি গাড়ি তাদের ওপর দিয়ে চলে যায়। এতে দুই কৃষক প্রাণ হারান। অভিযোগ, সেই গাড়িতে ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও বিজেপি নেতা অজয় মিশ্রর ছেলে। এ খবর ছড়িয়ে পড়তেই সংঘর্ষ বেধে যায় পুলিশ-বিক্ষোভকারীদের মধ্যে। এতে চার কৃষকসহ আটজনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনার মামলায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্রকে গ্রেপ্তার করে দেশটির পুলিশ।


সর্বশেষ..