আজকের পত্রিকা দিনের খবর প্রচ্ছদ শিল্প-বাণিজ্য শেষ পাতা

কেএসআরএম’র সহায়তায় ৩ হাজার পরিবারের পাশে সিএমপি দক্ষিণ জোন

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের শীর্ষ স্থানীয় লোহার রড প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান কেএসআরএম’র সহায়তায় নগরীর ৩ হাজার পরিবারের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছেন চট্টগ্রাম নগর পুলিশের (সিএমপি) দক্ষিণ জোন।

সোমবার (৩০ মার্চ) দুপুর ১২টায় নগরীর লাভলেইনস্থ একটি কমিউনিটি সেন্টারে এই কার্যক্রম উদ্বোধন করেন সিএমপি কমিশনার মাহবুবর রহমান।

এসময় তিনি করোনাভাইরাসের সংক্রমন রোধে সরকার নির্ধারিত কর্মসূচি সবাইকে মেনে চলতে আহ্বনা জানিয়ে বলেন, সরকার যে কয়দিন সাধারণ ছুটি ঘোষনা সবাইকে ঘরে অবস্থান করতে বলেছেন তা মেনে চললে সম্ভাব্য ক্ষতি থেকে আমরা রক্ষা পাবো।

তিনি শিল্পগ্রুপ কেএসআরএম’র প্রশংসা করে সমাজের অন্যান্য যারা বিত্তশালী আছেন তাদেরকে গরীব, অসহায়, কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

সিএমপি কমিশনার বলেন, আমরা চাইলে সবাইকে ডেকে একসাথে ত্রাণ সামগ্রী তাদের হাতে তুলে দিতে পারতাম। কিন্তু নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি বিবেচনায় আমাদের ফোর্স কষ্ট করে আপনাদের ঘরে ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে। আপনারা ঘরে থাকুন। নিরাপদ থাকুন, দেশকে নিরাপদ রাখুন।

সিএমপির চালুকরা ভ্রাম্যমাণ বাজার নিয়ে তিনি বলেন, আমরা ২৪ ঘন্টা হটলাইন সেবা চালু রেখেছি। প্রতিটি থানায় একটি করে হটলাইন আছে। তাছাড়া নগর পুলিশের একটি হটলাইন আছে, যার নাম্বার ০১৪০৪০০৪০০। আপনারা ইতোমধ্যে জেনেছেন হটলাইনে ফোন পেয়ে আমাদের থানার ওসির গাড়ি গিয়ে রোগীকে হাসপাতাল পৌঁছে দিয়েছে। যার যেখানে যা প্রয়োজন আমাদের বলুন। তবুও ঘরে অবস্থান করুন।

করোনার প্রাদুর্ভাব রোধে সাধারণ ছুটি ঘোষণা কর্মহীন ৩ পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। প্রতিটি পরিবারকে ১০ কেজি চাল, ৩ কেজি আলু, ২ কেজি ডাল, দেড় কেজি পেয়াজ-রসুন, আধা কেজি লবন, ১ লিটার তেল ও ১টি সাবানসহ সর্বমোট ১৯ কেজি খাদ্য সামগ্রী ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য পর্যায়ক্রমে বিতরণ করা হবে।

জানাগেছে, কেএসআরএম সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করার পর সাতকানিয়া কর্মহীন ২ হাজার ৩০০ পরিবারের কাছে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা নগদের মাধ্যমে প্রতিটি পরিবারকে ১ হাজার টাকা করে প্রেরণ করেছে। এর আগে ঘরে ঘরে গিয়ে কেএসআরএম প্রতিনিধরা সবার মোবাইলে নগর একাউন্ট চালু করে ডাটাবেইজ প্রস্তুত করেছিল।

ত্রাণ বিতরণের বিষয়ে কেএসআরএম’র মিডিয়া এডভাইজর মিজানুল ইসলাম বলেন, কেএসআরএম কর্তৃপক্ষ নীরবে দান করতে অভ্যস্থ। নগর পুলিশ প্রস্তাব দেওয়ার সাথে সাথেই কেএসআরএম ত্রাণের ব্যবস্থা করেন। চার দিকে সব বন্ধ। কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের পাশে থাকতে পেরে কেএসআরএম ধন্য। 

ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধনের সময় সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) শ্যামল কুমার নাথ, উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মেহেদী হাসান, অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শাহ মো. আব্দুর রউফ, জোনের চারটি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণসহ পুলিশের অন্যান্য উধ্বর্তন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

###

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..