স্পোর্টস

কেন এমন হার?

ক্রীড়া প্রতিবেদক : নাগপুরের ব্যাটিং স্বর্গে শুরুটা ভালো না হলেও এক পর্যায়ে মনে হচ্ছিল জিতবে বাংলাদেশ। শুধু তা-ই নয়, প্রথমবার ভারতের মাটি থেকে সিরিজ নিজেদেরও করে নেবে টিম টাইগার্স। শেষ পর্যন্ত অবশ্য মুশফিকুর রহিম-আফিফ হোসেনদের ‘আত্মাহুতির’ কারণে পারেনি সফরকারীরা। কিন্তু কেন জেতার মতো অবস্থা থেকেও হেরে গেল দল? উত্তরটা অবশ্য ঠিক জানা নেই মাহমুদউল্লাহ রিয়াদেরও। সংবাদ সম্মেলনে তাই এ অধিনায়ক ছিলেন অনেকটাই শান্ত।    

নাগপুরে গত পরশু সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে ভারতের বিপক্ষে ১৭৪ রান তাড়ায় ৩০ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। লক্ষ্যে পৌঁছাতে অবশ্য সফরকারীদের একটা সময় সমীকরণ ছিল ৮ ওভারে ৬৯ রান, হাতে ছিল ৮ উইকেট। ক্রিজে ছিলেন মোহাম্মদ নাঈম শেখ ও মোহাম্মদ মিথুন। দারুণ ব্যাটিং করছিলেন তারা। সেখান থেকে স্রেফ ৩৪ রানে শেষ ৮ উইকেট হারিয়ে গুটিয়ে যায় মাহমুদউল্লাহর দল। কিন্তু কেন এমন হলো? অধিনায়ক অবশ্য চুপ থাকেননি, ‘দুবার পরপর দুই বলে দুটি করে উইকেট পড়েছে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এমনটা হলে ওই জায়গা থেকে ফেরা অনেক কঠিন। এগুলো সাধারণত হয় না। তবে এই ম্যাচে হয়ে গেছে। খুব বাজে একটা অভিজ্ঞতা হলো। আপনি যদি তিন ম্যাচ বিশ্লেষণ করেন, তাহলে দেখবেন, আমরা কিছু ভালো ক্রিকেট খেলেছি। কিন্তু টি-টোয়েন্টি খেলায় যদি আপনি একবার মোমেন্টাম হারান, তাহলে সেটা ফেরত পাওয়া কঠিন।’

গত পরশু রান তাড়ায় শুরুতেই ফেরেন লিটন দাস ও সৌম্য সরকার। তবে মোহাম্মদ নাঈম আর মোহাম্মদ মিথুনের তৃতীয় উইকেটে ৬১ বলে ৯৮ রানের জুটিটাই ম্যাচে ফিরিয়ে এনেছিল বাংলাদেশকে। কিন্তু এরপরই মিথুন ফিরতেই দলের ব্যাটিং ভেঙে পড়ে তাসের ঘরের মতো। এ বিপর্যয়ের ব্যাখ্যা অবশ্য দিতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ। শুধু বলেছেন, ভবিষ্যতে এমন বিপর্যয় যেন না হয়, সে ব্যাপারে সতর্ক থাকবেনÑ‘আমরা জেতার পথেই ছিলাম। কিন্তু ৬-৭ বলের মধ্যে ৩-৪ উইকেট হারিয়ে ফেলেছি। আমার মনে হয়, এটাই ম্যাচের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এমন ভুল যেন ভবিষ্যতে না হয়, সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।’

বাংলাদেশ যে পরিস্থিতিতে ম্যাচ হেরেছে, সেখান থেকে কিন্তু যে কোনো দলই খেলা শেষ করে আসত। ব্যাপারটি মানছেন মাহমুদউল্লাহ, ‘এমন পরিস্থিতিতে আসলে বড় দলগুলো খেলা শেষ করে আসে। আমাদের কীসের ঘাটতি, দৃঢ়তার কি না জানি না। উইকেটও ভালো ছিল। আসলে আমরা ব্যাটসম্যানরাই ব্যর্থ হয়েছি। এটা আমাদেরই ভুল।’

ভারতের বিপক্ষে সম্ভাবনা জাগিয়েও হারের জন্য মাহমুদউল্লাহ দায়ী করেছেন ব্যাটসম্যানদের। তবে এর পেছনে কোনো অস্থিরতা ছিল না বলেও জানিয়েছেন তিনি, ‘মানসিক দৃঢ়তার ঘটতি ছিল কি না জানি না। সম্প্রতি আমরা এমন ভুল আরও করেছি। এসব পরিস্থিতিতে আসলে বড় দল খেলা শেষ করে। উইকেটও ভালো ছিল, আমার মনে হয় বোলাররা দারুণ করেছে, ওদের ১৮০-এর নিচে আটকে রেখেছে। আমার মনে হয়, এটা আমাদের ভুল যে শেষ করতে পারিনি। আমি বলব না মুশফিক ফেল করেছে। হ্যাঁ, আজকের ম্যাচের কথা বললে আমরা ফেল করেছি। এ ব্যাপারে আমি একমত। একটি সুযোগ ছিল, কিন্তু কাজে লাগাতে পারিনি।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..