দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

কোনো কোনো ক্ষেত্রে দলবদ্ধ দুর্নীতি হয়

কর্মশালায় পরিকল্পনামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: কোনো কোনো ক্ষেত্রে দলবদ্ধ (টিমভিত্তিক) দুর্নীতি হয়, তবে দুর্নীতি ব্যক্তিগত পর্যায়েই বেশি হয় বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, ‘দুর্নীতিতে টিমওয়ার্ক মাঝে মধ্যে হয় বলে আমার ধারণা, কিন্তু সাধারণত এটি ইন্ডিভিজুয়াল অ্যাক্ট।’

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে গতকাল ‘উন্নয়ন প্রকল্পের সম্ভাব্যতা সমীক্ষা প্রতিবেদনের খসড়া রূপরেখা চূড়ান্তকরণ’ শীর্ষক কর্মশালায় সভাপতির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন পরিকল্পনামন্ত্রী। কর্মশালায় সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, অধিদপ্তরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা অংশ নেন।

অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘মানুষ আপনাদের থেকে ভালো আউটপুট আশা করে। মানুষ মনে করে, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় একটা টেকনিক্যাল মন্ত্রণালয়। এখানে সব অর্থনীতি বিষয়ে বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিরা আছেন। তারা নিশ্চয় ডিপিপি (উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব) ভালো করে তৈরি করে দিয়েছেন। মন্ত্রী কে তাদের অতটা মাথাব্যথা নেই। কারণ মন্ত্রী আসেন, মন্ত্রী যান। আপনারা তো স্থায়ী (সরকারি কর্মচারীরা)। আপনারা ২০ বছর, ২৫ বছর কাজ করে এখানে এসেছেন।’

তিনি বলেন, যেখানেই যাই, যে আলোচনায় যাই, সবাই দুর্নীতি নিয়ে প্রশ্ন করে। আমি বিরক্ত হই। দুর্নীতি তো কোনো প্রশ্নের বিষয় নয়। এটা একটা ক্রিমিনাল অ্যাক্ট। পকেটমার একটা ক্রিমিনাল বিষয়। এটা নিয়ে আলোচনা করা, সেমিনার করার কোনো অর্থ হয় না। পকেটমার কী, আমরা বুঝি-জানি। আপনারা জানেন যে, আমি টেলিভিশনে বিভিন্ন আলোচনায় অংশ নিই। গত রাতেও (সোমবার) লন্ডনভিত্তিক একটি চ্যানেলে আলোচনায় অংশ নিয়েছিলাম। সেখানেও ঘুরেফিরে দুর্নীতি নিয়েই আলোচনা। দুর্নীতিতে তাদের আগ্রহ বেশি এবং এটা নিয়ে প্রশ্ন করেন সঞ্চালক। আমি বললাম, দুর্নীতি নিয়ে আলোচনার কিছু নেই, গবেষণা করারও কিছু নেই। দুর্নীতি হচ্ছে, অবশ্যই হচ্ছে। এটার ব্যবস্থাও আমাদের কাছে আছে। দুর্নীতি হলে কী করতে হবে, সেই বিধান তো আমাদের বইপত্রে আছে। আমরা এর বাইরে কিছু করতে পারব না।’

এম এ মান্নান আরও বলেন, ‘যেহেতু দুর্নীতির বিষয়টি আলোচিত হচ্ছে, সে জন্য আপনাদের নজরে আনলাম। আমার ধারণা, এটা এক ধরনের হাইপ। কিন্তু বাস্তবে স্বীকার করতে হবে, জনগণের মধ্যে যেটা আছে, নিশ্চয় এর ভিত্তি আছে। না হলে দুর্নীতি নিয়ে এত আলোচনা কেন হচ্ছে? এ সম্পর্কে আমাদের সচেতন হওয়া প্রয়োজন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘দুর্নীতিতে টিমওয়ার্ক মাঝে মধ্যে হয় বলে আমার ধারণা। তবে এটি সাধারণত ইন্ডিভিজ্যুয়াল অ্যাক্ট (ব্যক্তিগত কর্মকাণ্ড) বলে আমি মনে করি। যদিও পকেটমারের কাজটা কিন্তু টিমওয়ার্ক। একজন নেয়, আরেকজনকে দিয়ে দেয়, সে আরেকজনকে দেয় বলে গল্প শুনেছি। দুর্নীতির ক্ষেত্রেও কোনো কোনো ক্ষেত্রে এরকম আছে বলে আমার ধারণা। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দুর্নীতি ব্যক্তিগত পর্যায়ে হয় বলেই আমার ধারণা।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..