Print Date & Time : 22 May 2022 Sunday 2:35 pm

ক্যারিয়ারসেরা ইনিংসে তামিমের জবাব

ক্রীড়া প্রতিবেদক : গত বিশ্বকাপ থেকেই ধীরলয়ে ব্যাটিং করছিলেন তামিম ইকবাল। যে কারণে সমালোচনায় শিকার হয়েছিলেন তিনি। তবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বরূপে ফেরেন এ তারকা। শুধু তাই নয়, প্রতিপক্ষ বোলারদের ওপর তোলেন ঝড়। সে ধারাবাহিকতায় ড্যাশিং এ ওপেনার নিজের গড়া আগের সর্বোচ্চ ইনিংসকে ছাড়িয়ে যান। একই সঙ্গে বাংলাদেশের স্কোর বোর্ডকেও পৌঁছে দেন চূড়ায়।

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে গতকাল তামিম প্রথম বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান হিসেবে করেন সাত হাজার রান। এদিকে এ বাঁহাতি খেলেন ১৫৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। এতদিন ওয়ানডে তার সেরা ইনিংস ছিল ১৫৪ রান।

গতকাল ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলতে তামিম হাঁকান ১৩৬ বলে ২০টি চার ও ৩টি ছয়।

শেষবার তামিম সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন ২০১৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। সে সিরিজে দুর্দান্ত তামিম পেয়েছিলেন দুই সেঞ্চুরি, এরপর কেটে গেছে ১৯ মাস। এর মধ্যে গত ২৩ ইনিংসে ৫ হাফসেঞ্চুরি পেলেও সেঞ্চুরি দূরের বিষয় হয়েই থাকছিল। উল্টো নিজেকে খোলসের ভেতর ঢুকিয়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছিল তার বিপক্ষে। শেষ পর্যন্ত ব্যাট হাতে জবাবটা গতকাল দিয়েছেন তিনি।

দিন-রাতের ম্যাচে গতকাল আগে ব্যাটিংয়ে নেমে তামিম ছিলেন মন্থর। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে এ তারকা ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন। তাই তো ১০ ওভার শেষে তার রান ছিল ৩৮ বলে ১০ চারে ৪৯ রান। শেষ পর্যন্ত ৪২ বলে হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। সব মিলিয়ে এ তারকা সাত ম্যাচ পর দেখা পান হাফসেঞ্চুরির।

অনেকদিন পর হাফসেঞ্চুরির দেখা পেয়ে তামিম মনস্থির করেন সেঞ্চুরির। যে কারণেই হয়তো সে সময় একটু ধীরেই ব্যাট চালান এ তারকা। সে ধারাবাহিকতা ধরে রেখে এ বাঁহাতি শেষ পর্যন্ত ২৩ ম্যাচ আর ২১ মাস পর ১০৬ বলে ১৪ চারে সেঞ্চুরি তুলে নেন।

এর আগে ৮৪ রানের মাথায় তামিম ছুঁয়েছেন আরেকটি মাইলফলক। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে পা রেখেছেন সাত হাজারের ঠিকানায়।

সেঞ্চুরির পর তামিমের ব্যাট প্রতিপক্ষ বোলারদের ওপর আরও চড়াও হয়। তাই তো টিনোটেন্ডা মুটুমবোদজির টানা চার বলে তিন চার ও এক ছয় হাঁকান এ তারকা। এদিকে শন উইলিয়ামসকে বেরিয়ে এসে উড়িয়ে দেন লং অনের ওপর দিয়ে। সঙ্গে সঙ্গে এ তারকা পেয়ে যান ১৩২ বলে দেড়শ রানের দেখা। এ নিয়ে দুবার এ ল্যান্ডমার্কে পৌঁছান তিনি।

দেড়শ ছুঁয়ে কার্ল মুম্বাকে ছক্কা হাঁকিয়ে তামিম ছাড়িয়ে যান আগের রেকর্ড। ওই ওভারেই আরেকটি ছক্কার চেষ্টায় এ বাঁহাতি ধরা পড়েছেন লং অফ সীমানায়। তাই এ তারকা থামেন ১৫৮ রানে। এটিই ওয়ানডেতে বাংলাদেশের কোন ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রান।