স্পোর্টস

ক্রিকেটারদের ঈদ উদযাপন

ক্রীড়া ডেস্ক: মহামারি নভেল করোনা ভাইরাসের আবহে অন্যদের মতো জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাও ঈদুল আজহার আনন্দ উপভোগ করছেন। তবে গত ঈদের মতো একেবারে ঘরবন্দি অবস্থায় নয়, এবার যেহেতু কোরবানির দেওয়ার ব্যাপারটি ছিল, তাই অনেকে একটু হলেও বহির্মুখী হয়েছেন। ক্রিকেটাররা আনন্দেই কাটিয়েছেন ঈদের দিনটি।

করোনা জয়ের পর নড়াইলে ঈদ করলেন জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। নড়াইল-২ আসনের সাংসদ মাশরাফি নড়াইল সদর উপজেলা জামে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করেন।

এদিকে, নিষেধাজ্ঞায় থাকা সাকিব আল হাসান ঈদুল ফিতরের পর ঈদুল আজহাও উদযাপন করেছেন যুক্তরাষ্ট্রে। তাসকিন ঢাকায় ঈদ করলেও, নাজমুল শান্ত, সৈকত, মুস্তাফিজ এবং মেহেদী মিরাজরা নিজ নিজ জেলায় ঈদ উদযাপন করেছেন।

টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম বগুড়ায় ঈদ করেছেন। রাজশাহীতে ঈদ করেছেন সাব্বির রহমান।

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভক্ত-সমর্থকদের ঈদ শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদরা।

শুভেচ্ছা জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন ক্রিকেটাররা। টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ তার অফিসিয়াল পেজে নিজের একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, সবাইকে ঈদ মোবারক। আল্লাহ আমাদের সবার কোরবানি কবুল করুন।’

অভিজ্ঞ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম নিজের একটি ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘সবাইকে সালাম। মহান আল্লাহ আমাদের সমস্ত ভাল কাজের পাশাপাশি আমাদের সকল কোররবানি গ্রহণ করুন এবং দুনিয়ায় ও পরকালে পুরষ্কার দান করুন।’

তাসকিন আহমেদ ফেসবুকে ঈদের দিনের ছবি দিয়ে লিখেছেন, ‘আমার সব বন্ধু এবং ভক্ত-সমর্থকদেরকে ঈদের শুভেচ্ছা, ঈদ মোবারক।’ অন্যদিকে সাব্বির রহমান মা-বাবার সঙ্গে ছবি তুলে আপলোড করেছেন ফেসবুকে। সেখানে লিখেছেন, ‘সবাইকে আসসালামু আলাইকুম এবং ঈদ মোবারক।’

অভিজ্ঞ বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক তার পোস্টে লিখেছেন, ‘ঈদ মোবারক। আল্লাহ আমাদের সবার কোরবানি কবুল করুন।’

এ ছাড়া রুবেল হোসেন, সাইফউদ্দিন, তাসকনিরা ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন।

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার এবং বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ফেসবুকে সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে লিখেছেন, ‘এই ঈদ বয়ে আনুক সবার জন্য খুশি আর কল্যাণ। ঈদ মুবারক!’

ঈদের ছুটি কাটিয়ে ব্যক্তিগত অনুশীলনে ফিরবেন মুশফিক-তাসকিনরা। আগামী ৮-৯ আগস্ট থেকে দেশের চারটি ভেন্যুতে ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু হবে বলে জানিয়েছে বিসিবি।

আগামী সেপ্টেম্বরে শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার ব্যাপারে চিন্তা-ভাবনা করছে বিসিবি। সফর নিশ্চিত হয়ে গেলে দ্রুততার সঙ্গেই দলীয় অনুশীলন শুরুর ব্যবস্থা করবে দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..