দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা

ক্রেস্ট সিকিউরিটিজের এমডি গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিনিয়োগকারীদের শেয়ার ও অর্থ আত্মসাৎ করে লাপাত্তা হওয়া ক্রেস্ট সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. শহীদ উল্লাহ, তার স্ত্রী নিপা সুলতানাসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গ্রেপ্তার হওয়া অন্য দুজন  হলেন মো. খোরশেদ ও মো. জুয়েল।

গতকাল দুপুরে লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী এলাকা থেকে তাদের আটক করে ডিবির রমনা বিভাগ। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডিবির রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার এইচএম আজিমুল হক।

এর আগে গত ২৫ জুন রমনা মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ক্রেস্ট সিকিউরিটিজের বিও হিসাবধারী বিনিয়োগকারী হাজী মো. নিশাত। ইতোমধ্যে এ বিষয়ে আরও দুটি মামলা দায়ের করেন বিনিয়োগকারীরা।

সম্প্রতি হঠাৎ অফিসে তালা লাগিয়ে দিয়েছে ক্রেস্ট সিকিউরিটিজ কর্তৃপক্ষ। রাজধানীর পল্টনের প্রধান কার্যালয়সহ তাদের আরও  তিনটি শাখায় একযোগে তালা লাগিয়ে দিয়ে লাপাত্তা হয়ে গেছেন মালিকপক্ষ। লাপাত্তা হওয়ার সময় হাতিয়ে নেয় বিনিয়োগকারীদের লাখ লাখ টাকা।

বিনিয়োগকারীদের অভিযোগ হাউসটি তালা বন্ধ হওয়ার আগে তাদের অজান্তেই বড় বড় ক্লাইন্ডদের শেয়ার বিক্রি করেছে এ হাউসটি, যার কিচ্ছুই জানেন না বিনিয়োগকারী। এখন নিজেদের শেষ সম্বল হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন এসব বিনিয়োগকারী।

ক্রেস্ট সিকিউরিটিজে প্রায় ২১ হাজার বিনিয়োগকারীর বিও হিসাব রয়েছে। বর্তমানে তাদের শেয়ারের বাজার মূল্য ৮২ কোটি টাকা। কিন্তু শুধু ব্রোকারেজ হাউসটি না খোলায় বিনিয়োগকারীদের কী পরিমাণ শেয়ার ও টাকা আত্মসাৎ হয়েছে তা নিরূপণ করা সম্ভব হচ্ছে না। তাই দ্রুত ক্রেস্ট সিকিউরিটিজের সব শাখা খুলে ব্যাক অফিস সার্ভার থেকে লেনদেনের তথ্য নিয়ে ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করার দাবি জানিয়েছেন বিনিয়োগকারীরা।

প্রসঙ্গত, ক্রেস্ট সিকিউরিটিজ অনেক পুরোনো ব্রোকারেজ হাউস, যার সদস্য নং-৮। হাউসটির রাজধানীতে প্রধান কার্যালয়সহ আরও একটি শাখা এবং ঢাকার বাইরে কুমিল্লা ও নারায়ণগঞ্জে দুটি শাখা রয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ ➧

সর্বশেষ..