Print Date & Time : 30 June 2022 Thursday 2:01 am

ক্লাসিকো-রোমাঞ্চে কেউ জেতেনি কেউ হারেনি

স্পোর্টস ডেস্ক: ন্যু ক্যাম্পে আসলে কী ঘটতে যাচ্ছে? এল ক্লাসিকোর আগে এমন প্রশ্নই সমর্থকের মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছিলো। তবে এর উত্তর কিছুটা হলেও দুই দলই দিয়ে রেখেছিল আগেই। কোপা ডেল রের আগে বার্সার কোচ লুইস এনরিকে দলের তিন ফুটবলারকে বিশ্রামে রেখেছিলেন। অন্যদিকে মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান শুরু প্রতিপক্ষের প্রাণ ভোমরা নিওলেন মেসিকে আটকানোর পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু তার সেই পরিকল্পনা ভেঙে দারুণ খেলেছেন কিং লিও। রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সেলোনা এল ক্লাসিকোর ম্যাচের প্রথম থেকেই থাকল লড়াইয়ে উত্তাপ। দুই দলের লড়াইটা অবশ্য শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলের ড্রতেই শেষ হয়।

প্রথমার্ধে অবশ্য আক্রমণ, পাল্টা-আক্রমণে দুই দলের খেলা চলে। কিন্তু তাতে কোনো দলই গোলের দেখা পায়নি। বিরতির পর লুইস সুয়ারেজের গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। নেইমারের ফ্রি-কিক থেকে দুরন্ত হেডে ম্যাচের ৫৩তম মিনিটে গোল করেন উরুগুইয়ান তারকা এই স্ট্রাইকার। ম্যাচের ৬০তম মিনিটে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামেন আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা। নিয়মিত অধিনায়ক মাঠে নেমেই বুঝিয়ে দেন, এখনও তিনি ফুরিয়ে যাননি। মেসির সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে গোল করার দারুণ কিছু সুযোগ তৈরি করেন তিনি। কিন্তু তাদের কাছ থেকে বল পেয়ে সহজ দুটি সুযোগ নষ্ট করেন নেইমার। এল ক্লাসিকোতে নিজের ২২তম গোলটি করার সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি। ম্যাচের ৮০তম মিনিটে ইনিয়েস্তার লম্বা করে বাড়িয়ে দেওয়া বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে প্রতিপক্ষের জালে জড়াতে ব্যর্থ হন আর্জেন্টাইন তারকা। মেসি-নেইমার যদি গোলের সুযোগ নষ্ট না করতেন, তবে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে পারত কাতালান ক্লাবটি।

অন্যদিকে রিয়াল মাদ্রিদও সমানতালে লড়েছে মেসি-নেইমার-সুয়ারেজদের বিপক্ষে। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, করিম বেনজামা, রামোস আর কারভাজালরা স্মরণীয় মুহূর্ত উপহার দিয়েছেন ভক্তদের। ৫৯তম মিনিটে আক্রমণে যায় রিয়াল। বাঁ দিক থেকে বল নিয়ে ফাঁকায় থাকা রোনালদোকে পাস দেন কোভাচিচ। সিআর সেভেন বাধার মুখে পড়লে বেনজেমাকে পাস বাড়ান। দুর্দান্ত দক্ষতায় বল নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার পথে আলবার বাধার মুখে পড়ে বল হারান এ ফরাসি ফরোয়ার্ড। তবে নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে বার্সেলোনার হƒদয় ভেঙে দেন রামোস। বাঁ দিক থেকে মডরিচের ফ্রি-কিক থেকে ভেসে আসা বলে লাফিয়ে ওঠে বুলেটগতির হেডে বার্সেলোনা গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন রামোস। ফলে স্বাগতিক দর্শকদের মধ্যে নীরবতা নেমে আসে।