প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ক্লিনটনের সুপারিশেও গ্যাস বিক্রিতে রাজি হইনি: শেখ হাসিনা  

নিরাপত্তার কারণে আমাকে জনবিচ্ছিন্ন করবেন না : এসএসএফ এর প্রতি প্রধানমন্ত্রী

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানির মাধ্যমে ভারতের কাছে গ্যাস বিক্রি করতে বলেছিলেন। ওই প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ২০০১ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে হারতে হয়েছিল। গতকাল প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী এসএসএফ’র ৩১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে এ বিষয়ে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। সূত্র: বিডিনিউজ।

তিনি বলেন, আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নিজে আমাকে অনুরোধ করেছিলেন। তখন বিল ক্লিনটন প্রেসিডেন্ট। ঢাকায় এসেছিলেন তিনি। আমি তাকে ওই জবাবই দিয়েছিলাম যে আগে আমার দেশের মানুষের চাহিদা পূরণ করতে হবে। এরপর যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাই। তখনও একই প্রশ্ন। আমি একই উত্তর দিয়েছিলাম।

শেখ হাসিনা বলেন, ২০০১ সালে আমি ক্ষমতায় আসতে পারিনি। তার পেছনে কারণ ছিল, আমাদের গ্যাস বিক্রি করতে হবে। গ্যাস উত্তোলনের জন্য বিভিন্ন আমেরিকান কোম্পানি এখানে বিনিয়োগ করে। তাদের ইচ্ছা ভারতের কাছে গ্যাস বিক্রি করবে। আর ভারত এ গ্যাস কিনতে চেয়েছিল। কিন্তু আমি আমাদের গ্যাস বিক্রি করার পক্ষে মত দিইনি। আমার কথা ছিল, আগে আমার কত গ্যাস আছে জানতে হবে। আমার দেশের চাহিদা পূরণ করতে হবে। ৫০ বছরের রিজার্ভ রাখতে হবে। তারপর যদি অতিরিক্ত থাকে, তবেই আমি বিক্রি করব। তাছাড়া এ গ্যাস আমি বিক্রি করতে পারব না।

দেশের স্বার্থহানিকর কিছু করবেন না বলে জনগণকে আশ্বস্ত করে তিনি বলেন, আমি যা বলব, এক কথাই বলব। ক্ষমতার লোভে দেশের সম্পদ আমি অন্যের হাতে তুলে দিতে পারি না। তাই আমি রাজি হইনি। আমি দেশ বেচার মুচলেকা দিয়ে ক্ষমতায় যেতে চাই না। আমার দেশের সম্পদ দেশের মানুষের। এটা আমি কাউকে দিতে পারব না।

পদ্মা সেতুর প্রসঙ্গ এনে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছিল আমার বিরুদ্ধে। আমার মন্ত্রিপরিষদের বিরুদ্ধে, আমার পরিবারের বিরুদ্ধে। এটা একটা ষড়যন্ত্র ছিল, চক্রান্ত ছিল। কিন্তু তারা সেটা প্রমাণ করতে পারেনি। কানাডার আদালত ওটাই রায় দিয়েছে যে, এটা সম্পূর্ণ বানোয়াট, মিথ্যা একটা অভিযোগ ছিল। এখানে জনগণের সেবা করতে এসেছি। জনগণের জন্য কাজ করি। নিজের ভাগ্য গড়ার জন্য না। ১৯৫৪ সালে আমি মন্ত্রীর মেয়ে ছিলাম। আমি রাষ্ট্রপতির মেয়ে, প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে ছিলাম। আমি নিজে প্রধানমন্ত্রী ছিলাম। কাজেই দুর্নীতি করে যদি নিজের ভাগ্য ইচ্ছা থাকতো তাহলে বহু আগেই করতে পারতাম। কিন্তু আমি তা করিনি।