দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

ক্ষতিপূরণের দাবি সানোফি কর্মীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক: উদ্দেশ্যেপ্রণোদিতভাবে প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি ও ক্ষতিপূরণ দিতে টালবাহানা করায় সংবাদ সম্মেলন করে প্রতিবাদ জানিয়েছেন সানোফি বাংলাদেশ লিমিটেড ওয়ার্কার্স এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের কর্মীরা। গতকাল রাজধানীর ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামে (ইআরএফ) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানানো হয়। পাশাপাশি সংবাদ সম্মেলনে নতুন কমিটি ঘোষণা করেছে সংগঠনটি।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সানোফি গ্লোবাল ম্যানেজমেন্ট সানোফি বাংলাদেশ তাদের ৫৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোম্পানির এ সিদ্ধান্তের কারণে সানোফি বাংলাদেশ কর্মরত প্রায় এক হাজার কর্মীর ভবিষ্যৎ সুরক্ষা এবং তাদের যৌক্তিক অধিকার সমুন্নত রাখা নিয়ে দুশ্চিন্তা দেখা দিয়েছে। প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি ও ক্ষতিপূরণের বিষয়ে নিশ্চিত হতে চায় আমরা।

সংগঠনটির সভাপতি মো. নুরুজ্জামান রাজু বলেন, আমরা একাধিকবার আমাদের যৌক্তিক দাবির কথা সানোফি বাংলাদেশের ম্যানেজমেন্টকে জানালেও তারা শুধু আশ্বাসই দিয়ে গেছেন। তারা এখন পর্যন্ত আমাদের কোনো ক্ষতিপূরণ বা অর্জিত বেনিফিট, যেটা কোম্পানির কাছে গচ্ছিত আছে সেগুলো নিয়ে কিছুই বলেনি। এরপরও আমরা আশা রাখি আন্তর্জাতিক মানের এ কোম্পানি শ্রমিকদের সব দাবি-দাওয়া নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই পূরণ করবে।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, তৃতীয় কোনো কোম্পানির কাছে সানোফির ৫৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রির দিন থেকে আমাদের সব দাবি-দাওয়া ক্ষতিপূরণ-অর্জিত বেনিফিটসহ সব কিছু পরিশোধ করতে হবে। এ সময়ের মধ্যে আমাদের ক্ষতিপূরণ যদি না দেয়া হয় তাহলে আমরা আন্দোলন করতে বাধ্য হব। এ আন্দোলনের মাধ্যমেই আমাদের দাবি দাওয়া পূরণ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, গত ১৫ মাস ধরে আমরা আমাদের দাবির পক্ষে যৌক্তিকভাবে কোম্পানির ব্যবস্থাপনাকে বোঝানোর জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছি। তবে এ সময়ের মধ্যে ম্যানেজমেন্ট শুধু আশ্বাসই দিয়ে গেছেন। সুনির্দিষ্টভাবে ক্ষতিপূরণ এবং অর্জিত বেনিফিটসের বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি। ফলে আমাদের এক হাজার কর্মীর জীবন এক ধরনের অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে। চাকরি কিংবা সব ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে কি নাÑতা নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। আমরা চাই দ্রুত সময়ের মধ্যে আমাদের সব সমস্যার সমাধান করা হোক।

সভাপতি মো. নুরুজ্জামান রাজু ছাড়াও সানোফি বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের নবগঠিত কমিটিতে রয়েছেন, সাধারণ সম্পাদক সজীব কুমার চক্রবর্তী, সহসভাপতি আবদুল্লাহ আল ওমর ফারুক, সহসাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জিয়াউর রহমান, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক শরীফ মো. ফয়সাল, দপ্তর সম্পাদক মো. মাজহারুল ইসলাম, কার্যকরী সদস্য মাহমুদ হাসান এবং আতাউর রহমান।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ ➧

সর্বশেষ..