প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

খাতের দর ও লেনদেন বৃদ্ধিতে বাজার ইতিবাচক

ব্যাংক ও টেলিযোগাযোগ

রুবাইয়াত রিক্তা: পুঁজিবাজারে সপ্তাহের শেষদিনে ইতিবাচক গতিতে লেনদেন হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সবগুলো সূচক ইতিবাচক হওয়ার পাশাপাশি লেনদেনও বেড়েছে। তবে কমেছে বেশিরভাগ শেয়ারের দর। তা সত্ত্বেও সূচক ইতিবাচক হওয়ার পেছনে ভূমিকা ছিল বড় মূলধনি কোম্পানির দর বৃদ্ধি। গতকাল টেলিযোগাযোগ খাতের দুই কোম্পানিসহ ব্যাংক খাতের বেশকিছু কোম্পানির দর বেড়েছে। এছাড়া দামি শেয়ার বিশেষ করে বহুজাতিকসহ মৌলভিত্তির কোম্পানিগুলোর শেয়ারদর বেড়েছে। ২০০ অধিক দামি ৪০টি শেয়ারের মধ্যে ২৮টির দর বেড়েছে। এসব শেয়ারের দর বৃদ্ধি সূচকে ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।
গতকাল ২০ শতাংশ লেনদেন হয়ে বিমা খাত শীর্ষে থাকলেও আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কমেছে আট শতাংশ। এ খাতে ৭০ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের ১০ কোটি ৬০ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে তিন টাকা ৩০ পয়সা। কোম্পানিটি দর বৃদ্ধিতে তৃতীয় অবস্থানে উঠে আসে। সোয়া আট শতাংশ বেড়ে ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের তালিকায় উঠে আসে। ১৯ শতাংশ লেনদেন হয় প্রকৌশল খাতে। এ খাতে ৫৪ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসা ন্যাশনাল টিউবসের সোয়া ১৫ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দরপতন হয় তিন টাকা ২০ পয়সা। ন্যাশনাল পলিমারের প্রায় ১২ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে পাঁচ টাকা। সিঙ্গার বিডির সাড়ে ১১ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৮০ পয়সা। মুন্নু জুট স্টাফলার্সের সাড়ে সাত কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৮৮ টাকা। কোম্পানিটি দর বৃদ্ধিতে অষ্টম অবস্থানে ছিল। পৌনে ৯ শতাংশ বেড়ে ইস্টার্ন কেব্লস দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের মধ্যে অবস্থান করে। ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেন হয় ১১ শতাংশ। এ খাতে ৪৭ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। সোয়া ছয় শতাংশ বেড়ে সিলকো ফার্মা দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে অবস্থান করে। টেলিযোগাযোগ খাতের গ্রামীণফোনের সাড়ে ১৩ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে প্রায় পাঁচ টাকা। বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্লসের ১০ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে চার টাকা ২০ পয়সা। এ খাতে লেনদেন বেড়েছে তিন শতাংশ। ব্যাংক খাতে লেনদেন বেড়েছে পাঁচ শতাংশ। দর বেড়েছে ৪৩ শতাংশ কোম্পানির, কমেছে ৩৬ শতাংশের দর। ব্যাংক এশিয়ার সোয়া আট কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ৭০ পয়সা। দর বৃদ্ধিতে চতুর্থ অবস্থানে ছিল ব্যাংকটি। এছাড়া খাদ্য খাতের গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রো প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে। সিরামিক খাতের মুন্নু সিরামিকের পৌনে ১০ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে সাড়ে ১৬ টাকা। কোম্পানিটির দর ও লেনদেন বৃদ্ধির শীর্ষ দশের তালিকায় উঠে আসে। আর কোনো খাতে উল্লেখযোগ্য লেনদেন হয়নি। বস্ত্র খাতের স্টাইল ক্রাফটের দর সাড়ে ছয় শতাংশ এবং জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতের ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টসের দর সোয়া ছয় শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে উঠে আসে।

সর্বশেষ..