দিনের খবর স্পোর্টস

খুলনার রেকর্ড গড়া জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাংলাদেশের ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ২ উইকেটের জয় ছিল চারটি। কিন্তু কখনও এক উইকেটে কেউ জেতেনি। তবে গতকাল মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে রংপুর বিভাগের বিপক্ষে রুদ্ধশ্বাস লড়াই শেষে খুলনা গড়ে নতুন সেই নজির।

খুলনা বিভাগের গতকাল জয়ের জন্য দরকার ছিল মাত্র ৭৩ রান। হাতে ছিল ৫ উইকেট। তবে ম্যাচ সেরা মেহেদী হাসান (৫৬) ও জিয়াউর রহমানের (৫৩) জুটি ভেঙে একপর্যায়ে খুলনার জয়কে কঠিন করে দেন রংপুর বিভাগের সোহরাওয়ার্দী শুভ। শেষ পর্যন্ত অবশ্য মঈনুল ইসলাম (১৬*) ও আবদুল হালিমের (২*) দশম উইকেট জুটির ওপর ভর করে এক উইকেটে জিতে খুলনা।

গতকাল শেষ দিনে ৫ উইকেটে ১৩০ রান নিয়ে মেহেদী হাসান ও জিয়াউর রহমান পথচলা শুরু করছিলেন। তারা এগোচ্ছিলেন নির্বিঘেœই। কিন্তু একপর্যায়ে সোহরাওয়ার্দী শুভ ৫৬ রান করে মেহেদিকে ফিরিয়ে বিপজ্জনক জুটি ভেঙে দেন। এরপরই নাটকীয়ভাবে ম্যাচে ফেরে রংপুর। পরে একই বোলারের শিকার হন জিয়াউরও। এদিকে মাহমুদুল হাসানের অফ স্পিনে টানা দুই বলে আউট হন অধিনায়ক আবদুর রাজ্জাক ও রুবেল হোসেন। ১০ রানের মধ্যে চার উইকেট হারিয়ে খুলনা চলে যায় হারের দুয়ারে। সেখান থেকেই দলকে ফিরিয়ে জয়ের ঠিকানায় নিয়ে যান মইনুল ও হালিম। শেষ জুটি উইকেটে ছিল ৪৭ বল।

রংপুরের হয়ে সোহরাওয়ার্দী শুভ একাই

শিকার করেন ৬ উইকেট। আর মাহমুদুল হাসান নেন দুটি।

এ ম্যাচেই দেশের প্রথম শ্রেণির বোলার হিসেবে ৬০০ উইকেট শিকার করেন আবদুর রাজ্জাক। সব মিলিয়ে এ ম্যাচে তিনি নেন ১২টি উইকেট। তবে ম্যাচসেরা হয়েছেন অলরাউন্ডার মেহেদি। কেননা প্রথম ইনিংসে আটে নেমে অসাধারণ সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয় ইনিংসে মহামূল্য ৫৬ রান। তাছাড়া, দুই ইনিংস মিলে তিনি নেন ৫টি উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

রংপুর ১ম ইনিংস: ২২৪

খুলনা ১ম ইনিংস: ২৩৩

রংপুর ২য় ইনিংস : ২১১

খুলনা ২য় ইনিংস: ৬২.৪ ওভারে ২০৩/৯ (লক্ষ্য ২০৩, আগের দিন ১৩০/৫ ) (মেহেদি ৫৬, জিয়াউর ৫৩, মইনুল ১৬*, রাজ্জাক ২, রুবেল ০, হালিম ২*;  রবিউল ১২-২-৩৪-০, মুকিদুল ১৫-৪-৪৩-১, রিশাদ ১২-১-৫২-০, সোহরাওয়ার্দী ১৮.৪-৩-৫৫-৬, মাহমুদুল ৫-০-১৩-২)।

ফল: খুলনা ১ উইকেটে জয়ী

ম্যাচসেরা: মেহেদি হাসান। ��ি� ��:i2

সর্বশেষ..