শেষ পাতা

গাবতলীতে তাবিথের প্রচার কাজে হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনী প্রচারে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রাজধানীর গাবতলীর আনন্দনগর তেলের মিল এলাকায় এ হামলার ঘটনার ঘটে। এতে তাবিথ আউয়াল কিছুটা আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল বেলা সোয়া ১১টার দিকে ওই এলাকায় গণসংযোগ করছিলেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী তা?বিথ আউয়াল। এ সময় পেছন থেকে হঠাৎ করে ‘জয় বাংলা’ সেøাগান দিয়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়। ইটের টুকরো তাবিথের শরীরেও এসে পড়ে। এ সময় আহত হন কয়েকজন প্রচারকর্মী। তবে হামলার পরেও গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন তাবিথ আউয়াল।

তিনি বলেন, ‘হামলা করে থামানো যাবে না, ভয় দেখানো যাবে না। সাধারণ মানুষের সঙ্গে আমাদের যে গণসংযোগ, তা হামলা করে পিছিয়ে নেওয়া যাবে না। আমাকে টার্গেট করে পেছন থেকে মারা হয়েছে। আমার সঙ্গে সহকর্মী যারা আছেন তাদেরও মারা হয়েছে। সবচেয়ে ভয়ঙ্কর বিষয় হলো, আমাদের ওপরে হামলা কিছু পুলিশ কর্মকর্তার সামনে হয়েছে। যিনি হামলা করেছেন তাকে চেনেন তারা (পুলিশ)। এ এলাকার কাউন্সিলর প্রার্থী তিনি। আমি অনুরোধ করব, তার বিরুদ্ধে যেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়।’

ভোটাররা যেন ভয়ভীতি ছাড়া সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে ভোট দিতে পারেন, সে ব্যবস্থা নি?তে নির্বাচন কমিশনের প্রতি দা?বি জা?নান তাবিথ।

এদিকে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের ওপর হামলার ঘটনায় রিটার্নিং কর্মকর্তাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গতকাল বিকালে আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন ভবনে অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে কমিশন সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর সাংবাদিকদের জানান।

তিনি বলেন, তাবিথের ওপর হমলার বিষয়ে কমিশনের কাছে বিএনপি তাৎক্ষণিকভাবে অভিযোগ করেছে। কমিশন সেটি শুনেছে। সঙ্গে সঙ্গে রিটার্নিং অফিসারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, তদন্ত করে রিপোর্ট দেওয়ার জন্য।

এদিকে হামলার জন্য ঢাকা উত্তরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী ঠেলাগাড়ি প্রতীকের মুজিব সারোয়ার মাসুমের কর্মী-সমর্থকদের দায়ী করেছেন তাবিথ। যদিও দারুস সালাম থানার ওসি তোফায়েল আহমেদ সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘ওইখানে কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি। দুইপক্ষ মিছিল করার সময় হাল্কা ধাক্কাধাক্কি হয়েছে। পরে দুই পক্ষকে সেখান থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।’

নির্বাচনী প্রচারে ‘কাপুরুষের মতো’ হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তাবিথ আউয়াল। তিনি বলেন, ‘যতই হামলা হোক, আমাদের দমিয়ে রাখা যাবে না। সুশৃঙ্খলভাবে নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে যাব।’

যদিও তাবিথের ওপর হামলাকে বিএনপির নিজেদের সংঘর্ষ বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। বেরাইদে নির্বাচনী সমাবেশে তিনি বলেন, হামলার কথা এখনও শুনিনি। তবে তারা নিজেরা সংঘর্ষ বাধাতে পারেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..