শোবিজ

গিটার জাদুকর আইয়ুব বাচ্চুর জন্মদিন

বিনোদন ডেস্ক: রুপালি গিটারের মালিক হারিয়ে গেছেন মাত্র ৫৬ বছর বয়সে। ২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর সকালে সবাইকে কাঁদিয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছেন তিনি। গতকাল ১৬ আগস্ট আইয়ুব বাচ্চুর ৫৭তম জন্মদিন। এই প্রথম আইয়ুব বাচ্চুকে ছাড়া পালিত হলো তার জন্মদিন। তাকে ছাড়াও এবারই প্রথম তার জন্মদিন উদ্যাপন করছে পরিবার ও ভক্ত-অনুসারীরা।
এদিকে জন্মদিনে উম্মুক্ত হলো আইয়ুব বাচ্চুর অপ্রকাশিত গান। অ্যালবামে প্রকাশের জন্য ২০০৫ সালে রেকর্ড করা হয়েছিল আইয়ুব বাচ্চুর গাওয়া গান ‘ভাবসূত্র’। তবে সেটা তখন হয়নি।
গতকাল ১৬ আগস্ট এ কিংবদন্তির জন্মদিনে বিকাল ৪টায় টানা ১৪ বছর পর সেই গান প্রকাশ করল প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সাউন্ডটেক। ‘ভাবসূত্র’-এর কথা লিখেছেন মারজুক রাসেল। সুর-সংগীতায়োজন করেছিলেন আইয়ুব বাচ্চু নিজেই। এটির রি-মাস্টারিং করেছেন আনিসুজ্জামান আনিস।
প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সাউন্ডটেকের কর্ণধার সুলতান মাহমুদ বাবুল বলেন, ‘গানটি অনেক আগে তৈরি করা। সেদিন হঠাৎ মারজুক রাসেল আমাকে বিষয়টি মনে করিয়ে দেন। এরপর খোঁজাখুঁজি করে এটি বের করেছি। নতুনভাবে মাস্টারিংও করতে হয়েছে।’
তিনি আরও জানান, ফুটেজ স্বল্পতার কারণে ভিডিও তৈরি করা সম্ভব হয়নি। তাই লিরিক্যাল ভিডিও হিসেবে এটি এসেছে।
১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম নন্দিত ব্যান্ড তারকা ও গিটার লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চুর। মৃত্যুর পর সেই চট্টগ্রামেই তাকে চিরশায়িত করা হয়েছে। ছোটবেলা থেকেই গিটারের প্রেমে পড়েন তিনি। কলেজে জীবনে বন্ধুদের নিয়ে ‘গোল্ডেন বয়েজ’ নামে একটা ব্যান্ডদল গড়ে তোলেন আইয়ুব বাচ্চু, পরে এর নাম পাল্টে রাখা হয় ‘আগলি বয়েজ’। বিয়েবাড়ি, জন্মদিন আর ছোটখাটো নানা অনুষ্ঠানে তাদের এই ব্যান্ডদল গান করতো।
আইয়ুব বাচ্চুবন্ধুরা যে যার মতো একেক দিকে ছড়িয়ে পড়লেও আইয়ুব বাচ্চু ব্যান্ডদল ‘ফিলিংস’র সঙ্গে যুক্ত হয়ে যান। এরপর ১৯৮০ সালে তিনি যোগ দেন ‘সোলস’ ব্যান্ডে। এ ব্যান্ডের লিডগিটার বাজানোর দায়িত্বে ছিলেন টানা ১০ বছর। ১৯৯১ সালের ৫ এপ্রিল গড়ে তোলেন নতুন ব্যান্ড ‘এলআরবি’।
সংগীতের আঙিনায় আইয়ুব বাচ্চু একাধারে গীতিকার, সুরকার, সংগীত পরিচালক এবং গায়ক হিসেবে জনপ্রিয়। তার জন্মদিনে শ্রোতা-ভক্ত ও বন্ধু-স্বজনদের শুভেচ্ছায় সিক্ত
হচ্ছেন তিনি।
মূলত রক ঘরানার কণ্ঠের অধিকারী হলেও আধুনিক গান, ক্লাসিকাল সংগীত এবং লোকগীতি দিয়েও শ্রোতাদের মুগ্ধ করেছেন তিনি। আইয়ুব বাচ্চুর কণ্ঠ দেওয়া প্রথম গান ‘হারানো বিকালের গল্প। তার প্রথম প্রকাশিত একক অ্যালবাম ‘রক্তগোলাপ’। সফলতার শুরু দ্বিতীয় অ্যালবাম ‘ময়না’র মাধ্যমে। তিনি বেশকিছু বাংলা ছবিতে প্লে-ব্যাকও করেছেন। এছাড়া অসংখ্য অ্যালবামেও কণ্ঠ দিয়েছেন আইয়ুব বাচ্চু। এর মধ্যে ময়না, কষ্ট, প্রেম তুমি কষ্ট, দুটি মন, সময়, একা, পথের গান, ভাটির টানে মাটির গানে, জীবন, সাউন্ড অব, সাইলেন্স, রিমঝিম বৃষ্টি অ্যালবামগুলো উল্লেখযোগ্য।
আইয়ুর বাচ্চুর গাওয়া জনপ্রিয় কিছু গান সেই তুমি কেন অচেনা হলে, রুপালি গিটার, রাত জাগা পাখি হয়ে, কষ্ট পেতে ভালোবাসি, মাধবী, ফেরারি মন, এখন অনেক রাত, ঘুমন্ত শহরে, বার মাস, হাসতে দেখ, এক আকাশের তারা, উড়াল দেব আকাশে।

সর্বশেষ..