বাজার বিশ্লেষণ

গেইনারে প্রকৌশল খাতের পাঁচ কোম্পানি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল সোমবার দর বাড়ার শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে পাঁচ কোম্পানিই হলো প্রকৌশল খাতের। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, গতকাল রতনপুর স্টিল রি-রোলিং মিলসের শেয়ারদর ৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ বেড়ে শীর্ষ দর বাড়ার তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ৬২ টাকা ৩০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৬১ টাকা ৮০ পয়সা। দিনজুড়ে কোম্পানিটির ৩৭ লাখ ১০ হাজার ৫৪৪টি শেয়ার মোট দুই হাজার ৬৪৬ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ২১ কোটি ৯৫ লাখ ১৪ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৫৬ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৬২ টাকা ৩০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ৩৯ টাকা ৩০ পয়সা থেকে ৬২ টাকা ৩০ পয়সায় ওঠানামা করে।

১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৭৮ কোটি ৬২ লাখ ৪০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ১৪৫ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। কোম্পানিটির সাত কোটি ৮৬ লাখ ২৪ হাজার শেয়ার রয়েছে।

ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৪৭ দশমিক ০৫ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর কাছে ২০ দশমিক ৮৫ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩২ দশমিক ১০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

রেনউইক যজ্ঞেশ্বর অ্যান্ড কোম্পানি (বাংলাদেশ) লিমিটেডের শেয়ারদর ৭ দশমিক ৫০ শতাংশ বা ৪৬ টাকা ৮০ পয়সা বেড়ে শীর্ষ দর বাড়ার তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে। ওইদিন প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ৬৭০ টাকা ৯০ পয়সায়  হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৬৭০ টাকা ৯০ পয়সা। দিনজুড়ে কোম্পানিটির আট হাজার ২৪৫টি শেয়ার মোট ২৭৬ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৫৫ লাখ পাঁচ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৬২৯ টাকা ৯০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৬৭০ টাকা ৯০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ২৩০ থেকে ৮৬১ টাকা ৮০ পয়সায় ওঠানামা করে।

২০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন দুই কোটি টাকা। রিজার্ভে ঘাটতির পরিমাণ ৯ কোটি ১৬ লাখ টাকা। কোম্পানিটির ২০ লাখ শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে সরকারের কাছে রয়েছে ৫১ দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর কাছে ১৭ দশমিক ৮১ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩১ দশমিক ১৪ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস লিমিটেডের শেয়ারদর সাত দশমিক ৪০ শতাংশ শেয়ারদর বেড়ে শীর্ষ দর বাড়ার তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে। ওইদিন প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ৪৫ টাকা ১০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৪৫ টাকা। দিনজুড়ে কোম্পানিটির এক কোটি সাত লাখ ২৭ হাজার ৪২৩টি শেয়ার পাঁচ হাজার ৯৩১ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৪৭ কোটি সাত লাখ ২৪ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৪১ টাকা ৫০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৪৫ টাকা ৮০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ৩০ টাকা ৯০ পয়সা থেকে ৪৮ টাকা ৮০ পয়সায় ওঠানামা করে।

১৫০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১০৫ কোটি ৯৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ২৪ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে কর-পরবর্তী মুনাফা করেছে সাত কোটি ৬৫ লাখ টাকা। শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৮৫ পয়সা। কোম্পানিটির মোট ১০ কোটি ৫৯ লাখ ৮৪ হাজার শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৩১ দশমিক ৯৫ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর কাছে ৩০ দশমিক ৭০ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে শূন্য দশমিক ১৩ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩৭ দশমিক ২২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

মুন্নু জুট স্টাফলার লিমিটেডের শেয়ারদর পাঁচ দশমিক ৩৭ শতাংশ শেয়ারদর বেড়ে শীর্ষ দর বাড়ার তালিকায় অষ্টম স্থানে রয়েছে। ওইদিন প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ৫৭৮ টাকা ৮০ পয়সায়  হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৫৭৪ টাকা ৯০ পয়সা। দিনজুড়ে কোম্পানিটির চার হাজার ৬৮৯টি শেয়ার ১২০ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ২৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৫৩০ টাকা ১০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৫৮৬ টাকা ৫০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ২৬১ টাকা থেকে ৬৪৯ টাকায় ওঠানামা করে।

এক কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৪০ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ এক কোটি ৮০ লাখ টাকা। চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে কর-পরবর্তী মুনাফা করেছে এক লাখ টাকা। ইপিএস হয়েছে ২৫ পয়সা।

কোম্পানিটির মোট চার লাখ শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৫৬ দশমিক ৮১ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর কাছে ৬ দশমিক ৮২ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে শূন্য দশমিক ১৫ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩৬ দশমিক ২২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

বাংলাদেশ ল্যাম্পস লিমিটেডের শেয়ারদর ৪ দশমিক ৩৪ শতাংশ শেয়ারদর বেড়ে শীর্ষ দর বাড়ার তালিকায় দশম স্থানে রয়েছে। ওইদিন প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ১৮২ টাকা ৭০ পয়সায়  হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১৮২ টাকা ৬০ পয়সা। দিনজুড়ে কোম্পানিটির ৮০ হাজার ৮৯৪টি শেয়ার মোট ৭১১ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর এক কোটি ৪৬ লাখ ১৪ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনি¤œ ১৭৪ টাকা ৯০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১৮৩ টাকায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ১৬১ থেকে ২৭৪ টাকায় ওঠানামা করে। ৫০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৯ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫৩ কোটি ৫২ লাখ টাকা। চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে কর-পরবর্তী মুনাফা করেছে ২৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা। ইপিএস হয়েছে ৩০ পয়সা। কোম্পানিটির ৯৩ লাখ ৭০ হাজার ৬০৮টি শেয়ার রয়েছে।

 

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..