স্পোর্টস

ঘুরে দাঁড়ানোর অপেক্ষায় বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : অনেকটা ভাঙাচোরা দল নিয়েই ভারতে গেছে বাংলাদেশ। তবে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতে সেটা মোটেও বুঝতে দেননি মুশফিকুর রহিম-আফিফ হোসেনরা। গত পরশু অবশ্য স্বাগতিকদের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি সফরকারীরা। ৮ উইকেটে হেরে যাওয়ায় এখন সিরিজে সমতা বিরাজ করছে। আগামীকাল তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে লড়বে টিম টাইগার্স। এ ম্যাচ জিতলেই প্রথমবার ভারতের মাটিতে কোনো ট্রফি ছোঁয়ার স্বাদ পাবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। এ লক্ষ্য পূরণে সফরকারীরা রয়েছে ঘুরে দাঁড়ানোর অপেক্ষায়। 

রাজকোটে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশ করেছিল ৬ উইকেটে ১৫৩ রান। যদিও রানটা আরও বড় হতে পারত সফরকারীদের। কিন্তু নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ঝড় তুলে দ্রুত ফেরায় সেটা পারেননি টিম টাইগার্স। পরে তো এক রোহিত শর্মার ঝড়েই উড়ে যায় রাসেল ডমিঙ্গোর শিষ্যরা। তাই বলে নিজেদের সামর্থ্য নিয়ে কোনো দ্বিধা তৈরি হয়নি বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে। গতকাল পেসার শফিউল ইসলাম জানিয়েছেন, পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানোর চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে উš§ুখ তারা, ‘চেষ্টা করেছি প্রতিরোধ গড়ার। আমার সামর্থ্যে বিশ্বাস ছিল। অসহায় ছিলাম, ব্যাপারটা ঠিক এমন না। কীভাবে ওকে রুখে দেওয়া যায়, সেই লক্ষ্য ছিল আমার। চেষ্টা করেছি। সবাই সেভাবেই চেষ্টা করেছে। আসলে ও ভালো ক্রিকেট খেলেছে।’

গত পরশু হারলেও টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার সুযোগ এখনও আছে বাংলাদেশের। এজন্য শফিউল ইসলাম সতীর্থদের পরামর্শ দিয়েছেন, প্রথম ম্যাচের মতো পারফর্ম করতে, ‘বড় সুযোগ ছিল। এক ম্যাচ আগে যদি সিরিজ জিততে পারতাম, তাহলে অবশ্যই ভালো লাগত। হারলে তো মন খারাপ লাগবেই। তবে হারার পর কীভাবে ফেরা যায় সেটাই মূল কথা। সামনের ম্যাচের জন্য এখন আমরা তৈরি হচ্ছি। এ ম্যাচ ভুলে গিয়ে, এ ম্যাচের ভুলগুলো শুধরে, সামনের ম্যাচে মনোযোগ দিচ্ছি।’

শফিউল আরও বলেন, ‘অবশ্যই আমাদের এখনও সুযোগ আছে, যদি আমরা ভালো ক্রিকেট খেলি। প্রথম ম্যাচটা যে রকমভাবে খেলেছি, সে রকম যদি খেলতে পারি। আর এ ম্যাচে কিছু ছোট ছোট ভুল ছিল, যদি আমরা সামনের ম্যাচে এ ভুলগুলো না করি, অবশ্যই, আমাদের সিরিজ জেতা সম্ভব। আশা করি, আমরা দৃঢ়ভাবে ঘুরে দাঁড়াব।’

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে লিটন-নাঈম ভালো শুরু এনে দিয়েছিলেন। পরে সৌম্য সরকার-মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ চেষ্টা করেছিলেন সে পথে হাঁটতে। কিন্তু তাদের বিদায়ের পরই খেই হারিয়ে বসে টাইগাররা। যে কারণে দেড়শ’ ছাড়িয়ে থামে সফরকারীরা। মাঝারি মানের এ পুঁজি নিয়ে বোলাররা পারেনি লড়াই করতে। তবে আগামীকাল নাগপুরে অন্য এক বাংলাদেশ দেখার অপেক্ষায় দারুণ আত্মবিশ্বাসী শফিউল। 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..