চট্টগ্রামের উন্নয়নে চসিকের সম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে’

শেয়ার বিজ ডেস্ক: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, নগরীতে সরকারের যেসব উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চলছে, সেগুলো যেন ঝুঁকি ও ঝামেলা মুক্ত থাকে। এছাড়া নাগরিক নিরাপত্তা বিঘ্ন ও জনদুর্ভোগের কারণ হয়ে না দাঁড়ায় এবং নির্বিঘ্নে কাজ সম্পাদন হতে পারে সে জন্য দেখভাল, তদারকি ও সমন্বয় সাধনের দায়িত্ব, কর্তৃত্ব ও কর্তব্য পালনে চসিককে সম্পৃক্ত করার কথা বলেন তিনি।

গতকাল চসিকের আন্দরকিল্লার পুরোনো নগর ভবনের কে.বি আবদুস সাত্তার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত চসিকের ষষ্ঠ পরিষদের ৯ম সাধারণ সভায় সভাপতির বক্তব্যে মেয়র এ কথাগুলো বলেন। এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে চসিক কর্তৃপক্ষ।

মেয়র বলেন, চসিকের কর্মপরিষদ নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত। নগরীর চলমান উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে ও মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে সিডিএ, ওয়াসা, বিদ্যুৎসহ অন্যান্য সেবা সংস্থার বড় ধরনের যে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে, সে তুলনায় চসিকের সম্পৃক্ততা সামান্য। তবে প্রকল্প বাস্তবায়নে চলমান কার্যক্রমের অনেক ক্ষেত্রেই নানা সমস্যা, ভোগান্তি এমনকি অনাকাক্সিক্ষত প্রাণহানি ঘটছে। এসবের দায় প্রকল্প বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষের হলেও সাধারণ মানুষের সমালোচনার তীর থাকে চসিকের দিকেই।

মেয়র আরও বলেন, আমি ক্লিন সিটি দেখতে চাই। পরিচ্ছন্ন বিভাগে কয়েক হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছে। তাদের তদারকি করছেন কাউন্সিলররা। তারপরও চট্টগ্রাম পরিপূর্ণ ক্লিন সিটি হয়ে উঠতে পারেনি।

মেয়র পলিথিনমুক্ত নগরীর অঙ্গীকার ব্যক্ত করে বলেন, আপাতত চকবাজার, কর্ণফুলী, কাজীর দেউরী কাঁচা বাজারকে পলিথিন মুক্ত করার আওতায় আনা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে পুরো নগরীর কাঁচা বাজারগুলো এ কার্যক্রমের আওতায় আনা হবে। নগরীর ফুটপাতগুলো অবৈধ দখল মুক্ত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি বলেন, নগরীর ফুটপাতগুলো যতবারই দখল মুক্ত করা হয়েছে, তা ততবারই আবারও বেদখল হয়ে যায়। এবার ফুটপাতগুলো অবৈধ দখল মুক্ত করা হবে। এরপরও যদি কেউ ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করে তাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

মেয়র মশক নিধনের ব্যাপারে আরও তিন মাস নির্ধারণের কথা উল্লেখ করে বলেন, এ সময় যারা স্প্রে করবেন তাদের নিরাপদ সুরক্ষা পোশাক দেয়া হবে। চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সাধারণ সভায় আরও বক্তব্য দেন প্যানেল মেয়র মো. গিয়াস উদ্দিন, আফরোজা কালাম, সচিব খালেদ মাহমুদ, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম, মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিকসহ ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলররা।

সভায় এক প্রস্তাবে বিগত সাধারণ সভার পর থেকে এ পর্যন্ত নগরীতে যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়।


সর্বশেষ..