সুস্বাস্থ্য

চট্টগ্রামে ইবনে সিনার আধুনিক ও উন্নত স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম

‘ইবনে সিনা ট্রাস্ট’ পরিচালিত স্বাস্থ্যসেবা খাতের প্রতিষ্ঠান ‘ইবনে সিনা’ এখন বন্দরনগরী চট্টগ্রামে। ৩৯ বছরের অভিজ্ঞতার আলোকে চট্টগ্রামের ব্যস্ততম ও জনবহুল এলাকা কাতালগঞ্জে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির মেশিনারিজ, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও দক্ষ জনশক্তির সমন্বয়ে এমআরআই ও সিটি স্ক্যানসহ সব ধরনের পরীক্ষানিরীক্ষা ও কনসালটেশন সুবিধা নিয়ে ইবনে সিনা চট্টগ্রাম শাখার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সবার জন্য তুলনামূলক কম খরচে আধুনিক ও উন্নত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এ প্রতিষ্ঠানটি। স্বাস্থ্যসেবা একজন মানুষের মৌলিক অধিকার। তাই কেউ অসুস্থ হলে ইবনে সিনাকে বেছে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

বৃহত্তর চট্টগ্রামবাসীর আধুনিক স্বাস্থ্যসেবাদানের অঙ্গীকার নিয়ে গত বছরের ১০ নভেম্বর থেকে ‘ইবনে সিনা ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড কনসালটেশন সেন্টার, চট্টগ্রাম শাখা’র পরীক্ষামূলক ও ২৩ নভেম্বর থেকে পুরোপুরি সেবা কার্যক্রম শুরু হয়। চট্টগ্রাম তথা দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের সব শ্রেণির মানুষকে স্বাস্থ্যসেবাদানের লক্ষ্যে এ শাখা প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। ইবনে সিনার অন্যান্য শাখার মতোই এ শাখা থেকেও রোগীরা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের কনসালটেশন সুবিধা ও তুলনামূলক কম খরচে সব ধরনের পরীক্ষানিরীক্ষার সুযোগ পাচ্ছেন। ফলে এ অঞ্চলের রোগীদের উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্য কোথাও যাওয়ার প্রয়োজন হবে না বলে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা মনে করছেন।

ডায়াগনস্টিক সেবা

ইবনে সিনা চট্টগ্রাম শাখার ডায়াগনস্টিক সেবার মধ্যে রয়েছে সর্বাধুনিক ৩ টেসলা এমআরআই, ১২৮ সøাইস সিটিস্ক্যান, ডিজিটাল এক্স-রে, ওপিজি-ডেন্টাল এক্স-রে, ফোরডি কালার আল্ট্রাসনোগ্রাফি, ডিজিটাল ইসিজি, ইকো ও কালার ডপলার, ইটিটি, হলটার মনিটর, ভিডিও এন্ডোসকপি ও কোলনোস্কপি, ইউরোফ্লোমেট্রি, ডিজিটাল ইইজি, বোন মিনারেল ডেনসিটোমেট্রি, এনসিএস, ইএমজি, স্পাইরোমেট্রি, অটোমেটেড ব্লাড কালচার, বায়োকেমিস্ট্রি, ইমিউনোলজি, সেরোলজি, হেমাটোলজি, মাইক্রোবায়োলজি, ক্লিনিক্যাল প্যাথলজি, হরমোন টেস্ট, ক্যানসার মার্কার, হিস্টো ও সাইটোপ্যাথলজি, পিসিআর-ডিএনএ টেস্ট প্রভৃতি।

কনসালটেশন সেবা

কনসালটেশন সেবার মধ্যে রয়েছে মেডিসিন, নিউরো-মেডিসিন, ভাসকুলার-এন্ডোভাসকুলার সার্জারি, হƒদরোগ, বক্ষব্যাধি ও অ্যাজমা-অ্যালার্জি রোগ, কিডনি রোগ, নবজাতক ও শিশুরোগ, গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি ও লিভার রোগ, ফিজিক্যাল মেডিসিন, ডায়াবেটিস ও হরমোন রোগ, রক্তরোগ, জেনারেল ফিজিশিয়ান, জেনারেল ও ল্যাপারোস্কপিক সার্জারি, অর্থোপেডিক ও স্পাইন সার্জারি, ইউরোলজি, গাইনি প্রসূতি রোগ, চক্ষুরোগ, নাক-কান ও গলারোগ, অনকোলজি, চর্ম ও যৌনরোগ, মুখ ও দন্ত রোগ, বাত-ব্যথা ও প্যারালাইসিস, থোরাসিক সার্জারি প্রভৃতি।

অন্যান্য সেবা

অন্যান্য সুবিধার মধ্যে রয়েছে ডায়াবেটিস ও হরমোন সেন্টার, পুরুষ ও নারীদের জন্য পৃথক ডেন্টাল সার্জন, পুরুষ ও নারীদের জন্য আলাদা ফিজিওথেরাপিস্ট এবং নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় সংরক্ষিত দেশি-বিদেশি ওষুধসমৃদ্ধ ফার্মাসি।

প্যাকেজ রেটে হেলথ চেক-আপ

এ শাখায় রয়েছে নির্দিষ্ট অর্থ পরিশোধ করে প্যাকেজ রেটে হেলথ চেক-আপের সুবিধা। এগুলো হলো চার হাজার ৬০০ টাকায় প্রাপ্তবয়স্ক নারী ও পুরুষের ‘বেসিক হেলথ চেক-আপ’, চার হাজার ৬৫০ টাকায় ৪০ বছরের নিচে পুরুষের ‘এক্সিকিউটিভ হেলথ চেক-আপ’, ছয় হাজার থেকে ছয় হাজার ৫০০ টাকায় ৪০ বছরের নিচে মহিলার ‘এক্সিকিউটিভ হেলথ চেক-আপ’। আরও রয়েছে সাত হাজার টাকায় চল্লিশোর্ধ্ব বয়সের পুরুষের ‘এক্সিকিউটিভ হেলথ

চেক-আপ’, সাড়ে ১০ হাজার টাকায় চল্লিশোর্ধ্ব নারীদের ‘এক্সিকিউটিভ হেলথ চেক-আপ’, ১২ হাজার টাকায় চল্লিশোর্ধ্ব বয়সের পুরুষের ‘কমপ্রিহেনসিভ হেলথ চেক-আপ’, সাড়ে ১৫ হাজার টাকায় চল্লিশোর্ধ্ব নারীদের ‘কমপ্রিহেনসিভ হেলথ চেক-আপ’। চার হাজার ৭৫০ টাকায় ‘কার্ডিয়াক চেক-আপ প্যাকেজ-১ (সাসপেকটেড)’, পাঁচ হাজার ৪০০ টাকায় ‘কার্ডিয়াক চেক-আপ প্যাকেজ-২ (সাফারিং)’, তিন হাজার ৩০০ টাকায় ‘লিভার চেক-আপ প্যাকেজ-১ (সাসপেকটেড)’, ছয় হাজার ৯০০ টাকায় ‘লিভার চেক-আপ প্যাকেজ-২

(সাফারিং)’ রয়েছে। এছাড়া এক হাজার ৭৫০ টাকায় ‘প্রাইমারি ডায়াবেটিক চেক-আপ’, তিন হাজার ৮৫০ টাকায় ‘স্ট্যান্ডার্ড ডায়াবেটিক

চেক-আপ’, চার হাজার ১৫০ টাকায় ‘থাইরয়েড চেক-আপ’ এবং তিন হাজার ৩৩০ টাকায় ‘রেনাল/কিডনি স্ক্রিনিং’ পাবেন রোগীরা। চার হাজার ২০০ টাকায় পুরুষের ‘ক্যানসার স্ক্রিনিং’, ছয় হাজার ৩০০ টাকায় নারীদের ‘ক্যানসার স্ক্রিনিং’, দুই হাজার ১০০ টাকায় ‘প্রি-এমপ্লয়মেন্ট হেলথ চেক-আপ’, তিন হাজার ৮০০ টাকায় ‘প্রি-ম্যারিটাল চেক-আপ’, সাড়ে চার হাজার টাকায় চার থেকে ১৬ বছর বয়সিদের ‘চাইল্ড হেলথ চেক-আপ’ ও তিন হাজার টাকায় ‘স্মুকার হেলথ চেক-আপ’ প্যাকেজ সেবা রয়েছে।

ইবনে সিনা চট্টগ্রাম শাখার অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার (মার্কেটিং) তৈয়ুবুর রহমান বলেন, কোনো শর্ত ছাড়া আমরা সব ধরনের টেস্টে ২৫ শতাংশ ছাড় দিই। আমরা মূলত ডায়াগনস্টিক ও কনসালটেনশন সেবা দিয়ে থাকি। হাসপাতাল বা রোগী ভর্তি সেবা নিই এখানে। এখানকার সব মেশিন জার্মানির প্রতিষ্ঠান সিমেন্সের তৈরি। এ শাখা চালু উপলক্ষে আমরা প্রথম সপ্তাহে বিনা খরচে স্বাস্থ্যসেবা দিয়েছি। বর্তমানে রোগ নির্ণয় ও কনসালটেনশন সেবাÑদুই দিকেই আমরা রোগীদের প্রচুর সাড়া পাচ্ছি।

চট্টগ্রাম শাখার ম্যানেজার (অ্যাডমিন) ইনচার্জ এসএম তৌহিদুর রহমান বলেন, রোগ নির্ণয়ে আমরা শতভাগ মান রক্ষার চেষ্টা করি। বর্তমানে এখানে রোগ নির্ণয়ের ৮০ শতাংশ পরীক্ষাসেবা চালু রয়েছে। রোগ নির্ণয়ে সব ধরনের তথা ১০০ ভাগ পরীক্ষাসেবা চালু করতে চাই, যাতে রোগীদের অন্য কোথাও যাওয়ার প্রয়োজন না পড়ে। এক ছাদের নিচে সব ধরনের পরীক্ষাসেবা চালু করব আমরা।

উল্লেখ্য, শুরু থেকে একটি ‘ট্রাস্টি বোর্ড’ দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে ‘ইবনে সিনা’। এর চেয়ারম্যান অব দ্য বোর্ড অব ট্রাস্টিজ হলেন কমোডর (অব.) মো. আতাউর রহমান। ট্রাস্টি বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন অধ্যাপক ড. শামসুদ্দিন আহমেদ, শাহ আবদুল হান্নান, অধ্যাপক আবু নাছের মোহাম্মদ আবদুস জাহের, অধ্যাপক ড. চৌধুরী মাহমুদ হাসান, অধ্যাপক ড. একেএম সদরুল ইসলাম, কাজী হারুন-উর-রশিদ ও ড. মিয়া মোহাম্মদ আয়ুব।

 মোহাম্মদ আলী, চট্টগ্রাম

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..