শেষ পাতা

চট্টগ্রাম বন্দরে প্রসাধনীর ঘোষণায় আমদানিকৃত মাদক জব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

প্রসাধনী ঘোষণায় মাদক আমদানি করেছে ঢাকার প্রিমিয়ার ট্রেডিং নামের এক প্রতিষ্ঠান। চীন থেকে বিভিন্ন ধরনের প্রসাধনী ও ব্রাশ আমদানির ঘোষণা দিলেও সিসা লিকুইড নিকোটিন ফ্লেভার নিয়ে আসে প্রতিষ্ঠানটি। গতকাল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চালানটি জব্দ করেন চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের কর্মকর্তরা।

জানা যায়, কাস্টম হাউসে গত ৯ সেপ্টেম্বর বিল অব এন্ট্রি (সি নং- ১৫৬৯৯৩২) দাখিল করে আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান। যাতে ১৯ টন প্রসাধনীর মোড়কে চীন থেকে আট টন প্রসাধনী আমদানি করার কথা ছিল। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি শতভাগ প্রসাধনী আমদানি না করে লুকিয়ে নিয়ে আসে মাদকদ্রব্য, যা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। কাস্টমস কর্তৃপক্ষ কায়িক পরীক্ষা করে ওই কনটেইনারে ৫৪ কেজি সিসা, ১৬৫ কেজি লিকুইড সিসার ফ্লেভার ও ১৯২ কেজি কাঠ-কয়লা শনাক্ত করে। তবে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শতভাগ কায়িক পরীক্ষা সম্পন্ন না হওয়ায় মাদকদ্রব্যের মূল্য ও সঠিক পরিমাণ জানা যায়নি।

এই মাদক চালান খালাস করতে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট হিসেবে সহায়তা করেছে সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি আলতাফ হোসেন বাচ্চুর প্রতিষ্ঠান নিউ স্টার এন্টারপ্রাইজ সিঅ্যান্ডএফ লিমিটেড। চালানটি খালাস করতে প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড থেকে এলসি করা হয়েছিল।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের নিরীক্ষা ও তদন্ত শাখা সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা চালানটি শনাক্ত করে। বর্তমানে কায়িক পরীক্ষা করা হচ্ছে। এর মধ্যে তারা বেশ কিছু মাদক শনাক্ত করেছে। বাকি পরীক্ষার পর সঠিক পরিমাণ ও বাজারমূল্য জানা যাবে। তবে এ বিষয়ে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য নেওয়া যায়নি।

সর্বশেষ..