প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

চলতি সপ্তাহে সৌদি আরব যাচ্ছেন শি জিনপিং

আরব দেশগুলোয় চীনের বড় বিনিয়োগের আশা রিয়াদের

শেয়ার বিজ ডেস্ক : আগামী ৯ ডিসেম্বর সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘চীন-আরব সম্মেলন’। এ সম্মেলনের দুদিন আগে ৭ ডিসেম্বর রিয়াদে যাচ্ছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। এ সম্মেলনে মধ্যপ্রাচ্যের উপসাগরীয় ও আরব অঞ্চলভুক্ত দেশগুলোর বিভিন্ন খাতে চীনের বড় বিনিয়োগ আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আশা করা হচ্ছে, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং নিজে এ বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। খবর: রয়টার্স।

চীনের একটি সূত্র জানিয়েছে, আগামী ৭ ডিসেম্বর রিয়াদ সফরের উদ্দেশ্যে বেইজিং ত্যাগ করবেন শি জিনপিং। তবে সৌদি সরকারের যোগাযোগ দপ্তর এবং চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ সম্পর্কে আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা দেয়নি। এমনকি কোনো দপ্তরের কর্মকর্তাই এ সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

উপসাগরীয় অঞ্চল এবং তার বাইরে মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার আরবিভাষী দেশগুলোর বিদ্যুৎ, নিরাপত্তা, প্রযুক্তি ও অন্যান্য খাতে চীনের বিনিয়োগ আকর্ষণ করতেই এ সম্মেলন হচ্ছে। এরই মধ্যে সম্মেলনের নিমন্ত্রণপত্র এসব দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানদের ঠিকানায় পাঠানোও হয়েছে। কতসংখ্যক আরব রাষ্ট্রকে আসন্ন এ সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে, সে সম্পর্কে নিশ্চিত কোনো তথ্য দেননি সৌদির কূটনীতিকরা। তবে তারা জানিয়েছেন, সম্মেলনে চীন ও মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য রাষ্ট্রের মধ্যে কয়েকটি বিনিয়োগ চুক্তি স্বাক্ষর হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

নভেম্বরের প্রথম দিকে সৌদির পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবদেল আল জুবেইর জানিয়েছিলেন, পারস্পরিক বাণিজ্য বৃদ্ধি ও আঞ্চলিক নিরাপত্তা রক্ষার স্বার্থে চীনের সঙ্গে আরব রাষ্ট্রগুলোর শিগগিরই একটি সম্মেলন হওয়া প্রয়োজন। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘আমরা মনে করি চীনের সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধি ও আঞ্চলিক নিরাপত্তার প্রশ্নটিকে গুরুত্ব দেয়া উচিত মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর।’

মধ্যপ্রাচ্যের উপসাগরীয় অঞ্চলের ছয় দেশ সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, কাতার, ওমান ও বাহরাইন অবশ্য কয়েক বছর ধরেই চীন ও রাশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ককে আরও বিস্তৃত ও দৃঢ় করতে চাইছে। এসব দেশে চীনের কম-বেশি বিনিয়োগও রয়েছে। তবে এবার পুরো মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চল চীনের সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধি ও চীনা বিনিয়োগ প্রত্যাশা করছে।