লভ্যাংশ ঘোষণা

চার কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা  

নিজস্ব প্রতিবেদক: ২০১৭ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে চার কোম্পানি। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ইস্টার্ন লুব্রিক্যন্টস: আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটি ১০০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪০ টাকা ৬৩ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৪৩ টাকা সাত পয়সা।

এটি আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে ৪১ টাকা ৭০ পয়সা ও এনএভি ১১২ টাকা আট পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদন জন্য বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আগামী ২৭ জানুয়ারি ২০১৮ বেলা ১১টায় হোটেল সৈকত, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন, স্টেশন রোড, চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৪ ডিসেম্বর।

চলতি হিসাববছরের প্রতি প্রান্তিকে ইপিএস হয়েছে ৪০ টাকা ৬৩ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল ৪১ টাকা ৭০ পয়সা। অর্থাৎ ইপিএস কমেছে এক টাকা সাত পয়সা। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এনএভি হয়েছে ১৪৩ টাকা সাত পয়সা, যা একই বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময় ছিল ১১২ টাকা আট পয়সা।

গতকাল কোম্পানির শেয়ারদর ১৬ দশমিক ১৮ শতাংশ বা ১৯১ টাকা ৩০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ৯৯১ টাকায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৯৯৭ টাকা ২০ পয়সা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৯৮৭ টাকা ২০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ এক হাজার ১৮০ টাকায় হাতবদল হয়। ওইদিন ১৭ হাজার ৫০০টি শেয়ার এক হাজার ৩২ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর এক কোটি ৭৭ লাখ ২২ হাজার টাকা।

যমুনা অয়েল: আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটি ১১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় ইপিএস হয়েছে ২০ টাকা ৩১ পয়সা এবং এনএভি হয়েছে ১৬৬ টাকা ৯৮ পয়সা। এটি আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে ১৭ টাকা ৭৪ পয়সা ও ১৪৩ টাকা ৪৪ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য এজিএম আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি

২০১৮ বেলা সাড়ে ১১টায় চিটাগং বোট ক্লাব, গেট নং-১১, পূর্ব পতেঙ্গা, চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ১৯ ডিসেম্বর।

ফার্মা এইডস: আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটি ৩৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় ইপিএস হয়েছে ৯ টাকা ৪৮ পয়সা এবং এনএভি হয়েছে ৪৯ টাকা ৫৩ পয়সা। এটি আগের বছর একই সময় ছিল সাত টাকা ৫২ পয়সা ও এনএভি ৪৩ টাকা ২৪ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য এজিএম আগামী ২৮ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় কেন্দ্রীয় কচিকাঁচার মেলা অডিটরিয়াম, ৩৭/এ সেগুনবাগিচা, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৪ ডিসেম্বর।

ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড: আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটি তিন শতাংশ নগদ ও ১২ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় ইপিএস হয়েছে দুই টাকা ১৪ পয়সা এবং এনএভি হয়েছে ৩৪ টাকা ২৪ পয়সা। এটি আগের বছর একই সময় ছিল দুই টাকা এক পয়সা ও এনএভি ৩২ টাকা ১০ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদন জন্য এজিএম আগামী ৩০ ডিসেম্বর বেলা সাড়ে ১১টায় চিটাগং বোট ক্লাব, এয়ারপোর্ট রোড, পূর্ব পতেঙ্গা, চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৫ ডিসেম্বর। কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন বর্তমান ৩০০ কোটি থেকে ৬০০ কোটি টাকায় উন্নীত করতে চায় এর পর্ষদ। এজন্য পরবর্তী বিশেষ সাধারণ সভায় (ইজিএম) কোম্পানির শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদন নেওয়া হবে।

অভিহিত মূল্য ১০ টাকার সঙ্গে ১০ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ২০ টাকা করে রাইট শেয়ার ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোম্পানিটি। সাধারণ শেয়ারহোল্ডার এবং বিএসইসির অনুমোদনসাপেক্ষে সিদ্ধান্তটি কার্যকর হবে।

বিনিয়োগকারীদের অনুমোদনের জন্য আগামী ৩০ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম বোট ক্লাবে বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) করবে কোম্পানিটি। এর জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ হয়েছে ৫ ডিসেম্বর।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..