প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

চীনের বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা ভাষার কোর্স চালুর আহ্বান ঢাবি ভিসির

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. আআমস আরেফিন সিদ্দিক বাংলাদেশ এবং চীনের সম্পর্ককে আরো শক্তিশালী করতে চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা ভাষা কোর্স চালুর আহ্বান জানিয়েছেন। গতকাল চীনের হেনান প্রদেশের শিক্ষা, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও সংস্কৃতি বিভাগের উপপরিচালক চেং ঝিয়াংলির নেতৃত্বে ৩৫ সদস্যবিশিষ্ট একটি প্রতিনিধি দল তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করতে এলে তিনি এ আহ্বান জানান।

এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কনফুসিয়াস ইনস্টিটিউটের পরিচালক ড. জোউ মিংডং এবং সংগীত বিভাগের চেয়ারপারসন ড. মহসিনা আক্তার খানম উপস্থিত ছিলেন।

চীনা সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি দলকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাগত জানিয়ে অধ্যাপক ড. আআমস আরেফিন সিদ্দিক বলেন, বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে দীর্ঘকাল ধরে চমৎকার ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। এ সম্পর্ককে আরো জোরদার করতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৫০ দশকের শেষ দিকে চীন সফর করেন। শিক্ষা, গবেষণা এবং সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে উভয় দেশের মধ্যে বিরাজমান সম্পর্ক দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে চীনের বহু বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে চলমান রয়েছে পারস্পরিক সহযোগিতামূলক শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম।

আরেফিন সিদ্দিক আরো বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে চীনা ভাষার পাশাপাশি বিভিন্ন ভাষার ওপর কোর্স চালু রয়েছে। এ ইনস্টিটিউট থেকে চীনের অনেক কূটনীতিক, সাংবাদিক এবং শিক্ষার্থীরা বাংলা ভাষা কোর্স সম্পন্ন করে এখন চমৎকারভাবে বাংলায় কথা বলছেন। তিনি উভয় দেশের সম্পর্ককে আরো শক্তিশালী করতে চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা ভাষা কোর্স চালুর ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

ভাইস চ্যান্সেলর চীনা সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি দলকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবময় ইতিহাস বিশেষ করে ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে এবং ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের আত্মত্যাগের কথা অবহিত করেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ এবং চীন যৌথভাবে ২০১৭ সালকে পারস্পরিক সহযোগিতা ও বন্ধুত্বের বছর হিসেবে ঘোষণা করেছে।