বিশ্ব সংবাদ

চীনে দ্বিতীয় দফা করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা

শেয়ার বিজ ডেস্ক: চীনে গতকাল মঙ্গলবার নতুন করে আরও ৭৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে দেশটিতে দ্বিতীয় দফা করোনা ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের বেশিরভাগই বিদেশ থেকে এসেছেন। এতদিন চীনের নাগরিকরাই ছিলেন করোনার বাহক। এখন উল্টো বাইরে থেকে আসা লোকজন এ ভাইরাসের বাহক হয়ে উঠছে। খবর: বিবিসি।

এক সপ্তাহের কাছাকাছি সময়ে উহানে প্রথম একজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। গত বছরের শেষদিকে উহান থেকেই করোনাভাইরাসের  প্রাদুর্ভাব ঘটে। চীনের বিভিন্ন জায়গায় স্থানীয় পর্যায়ে আরও তিনজন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন বলছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা সবাই উহানের বাসিন্দা। মার্চের শুরু থেকে এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৭৪ জন মঙ্গলবার আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল সোমবারের তুলনায় আক্রান্তের এ সংখ্যা দ্বিগুণ।

সম্প্রতি চীনে নতুন করে সংক্রমিতদের বেশিরভাগ বিদেশ থেকে এসেছেন। বিদেশ থেকে আগতদের নিয়ে বেইজিং কর্তৃপক্ষ খুবই উদ্বিগ্ন। দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে না আনতেই বিদেশ থেকে আগতদের মাধ্যমে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে।

জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বশেষ জরিপ অনুসারে, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৬ হাজার ৫০৮ জন মারা গেছেন। চীনে বিদেশ থেকে এসে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৪২৭।

বাইরে থেকে যারা নতুন এসেছেন, তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখতে চীনের অনেক শহরে কড়া নিয়ম-কানুন জারি করা হয়েছে। বেইজিংভিত্তিক আন্তর্জাতিক সব ফ্লাইট অন্য শহরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সেখানে তাদের শরীরে ভাইরাস আছে কি না, তা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

দেশটির সরকারি গণমাধ্যম দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ নিয়ে সতর্কতা জারি করেছে। দেশটির সরকারি গ্লোবাল টাইমস পত্রিকার খবরে সতর্কতা জারি করে বলা হয়, কোয়ারেন্টাইন প্রতিরোধে যথেষ্ট ব্যবস্থা না থাকার অর্থ হলো দ্বিতীয় দফার সংক্রমণ অনেকটা অনিবার্য। চীনে এখন পর্যন্ত ৮১ হাজারের বেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে তিন হাজার ২৭৭ জনে। করোনাভাইরাসের কেন্দ্রস্থল হুবেই প্রদেশের উহানের জীবনযাত্রা ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..