শেষ পাতা

চীনে বাংলাদেশ দূতাবাসে হটলাইন চালু

করোনা ভাইরাস

নিজস্ব প্রতিবেদক: চীনে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে বেইজিংয়ের বাংলাদেশ দূতাবাসে হটলাইন চালু করা হয়েছে। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম গতকাল শনিবার এক বার্তায় এ তথ্য জানান। চীনের ভাইরাস উপদ্রুত এলাকায় ৩০০ থেকে ৪০০ শিক্ষার্থীসহ বাংলাদেশি নাগরিকদের খোঁজখবর রাখতেই ওই হটলাইন খোলা হয়েছে বলে তিনি জানান।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানান, চীনে বাংলাদেশ দূতাবাসে হটলাইন নম্বর হলো (৮৬)-১৭৮০১১১৬০০৫। হটলাইনের পাশাপাশি উইচ্যাট গ্রুপও খোলা হয়েছে। দূতাবাসের কর্মকর্তা খায়রুল বাসার ও আসিফ বাংলাদেশিদের করা ২৪৫ সদস্যের উইচ্যাট গ্রুপে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। বিশেষ করে উহান শহরে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে সরকার কাউকে বাসা থেকে বের হতে দিচ্ছে না। বিচলিত না হয়ে সরকারি নির্দেশ মেনে চলার জন্য সবাইকে বলা হয়েছে।

মধ্য চীনের উহান শহর থেকে এ রোগের সূচনা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ওই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪১ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে চীনা কর্তৃপক্ষ। সেই সঙ্গে আক্রান্তের সংখ্যা দুই হাজার ছাড়িয়েছে বলেও জানা গেছে। রোগ ছড়িয়ে পড়া থেকে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে চীন। এর আগে, গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের ওই শহরে নিউমোনিয়ার মতো একটি রোগ ছড়াতে দেখে প্রথম চীনের কর্তৃপক্ষ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে সতর্ক করে। এরপর ১১ জানুয়ারি প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। তবে ঠিক কীভাবে এর সংক্রমণ শুরু হয়েছিল, তা এখনও নিশ্চিত করে বলতে পারেননি বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সম্ভবত কোনো প্রাণী এর উৎস ছিল। প্রাণী থেকেই প্রথমে ভাইরাসটি কোনো মানুষের দেহে ঢুকেছে। তারপর মানুষ থেকে মানুষে ছড়িয়েছে। এর আগে সার্স ভাইরাসের ক্ষেত্রে প্রথমে বাদুড় এবং পরে গন্ধগোকুল থেকে মানুষের দেহে ঢোকার নজির রয়েছে। আর মার্স ভাইরাস ছড়িয়েছিল উট থেকে। করোনা ভাইরাসের ক্ষেত্রে উহান শহরে সামুদ্রিক একটি খাবারের কথা বলা হচ্ছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..